র্বহারার দাবী

[ সামাজিক নাটক ]

শ্্বীঢুলালচন্্র নম্বর

পশুপতি বুক ডিপো ৯৮২, অপার চিৎপুর রোড, কলিকাতা

প্রস্থকার কর্তৃক সর্বন্থত্ব সংরক্ষিত ] [ দেড় টাকা

প্রকাশক... প্রীনরেন্রনাথ পায়াল পঙ্খগতি বুক ভিলো ৯৮২, অপার চিৎপুর রোড, কলিকাতা!

নৃতন সংস্থরণ

মুদ্রাকর--- ছিপপুপতি চট্টোপাধ্যায় ্দিউ পম্ুপতি এপ্স ৩৩১। অপার চিৎপুর রো,

উৎসর্গ

নাট্যাচার্ষ ছী।স্পিশ্ি ল্রঝুছ হ্বাক্ল -ভ্ভা কুড়ি মহাশয়ের করকমলে

নিবেদন

আমাদের দেশে নাটকের অভাব নেই। আঙ্জ৪ও কত নৃতন নাটকের অভিনয় হ'চ্ছে রঙ্গমঞ্চে_-সগৌরবে তবুও কেন এই নাটক খানা লিখলাম ? এর উওরে শুধু এই কথাই ব'লব--ছোটবেল! থেকে নাটক লেখবার ইচ্ছা! ছিল প্রবল; তাই জাতির এই ঘোরতর হছদ্দিনেও কত আশা-নিরাশার ভেতর দিয়ে, শুধু জনজাগরণের ভিত্তিতে নাটক খানা না লেখার লোভ সামলাতে পারলাম না। আমার এই ছুঃসাহম কার্ষে পরিণত হ'ত না, যদ্দিনা আমি স্ুগ্রসিদ্ধ নাট্যকার শ্রীযুক্ত পশুপতি চট্টোপাধ্যায় মহাশয়ের সাহায্য পেতাম তিনি এই নাটকের গান ক'খানি রচনা ক'রে দিয়েছেন ; প্রুফ? দেখবার ভারও হ্ছেচ্ছায় গ্রহণ ক'রেছেন। এর জন্ত আমি তাঁর কাছে চিরকুতজ্ঞ। সাময়িক দুর্বলতায় আমি যখনি নিজেকে হারিয়ে ফেলেছি শ্রদ্ধেয় স্থুদর্শন অভিনেত। শ্রীযুক্ত জীবন কু গোস্বামী মহাশয় তখনি আমায় সাহল, আশা তাঁর নাটকীয় অভিজ্ঞতা নিয়ে আয়ার পাশে দঈীড়িয়েছেন তাকে আমি আমার আন্তরিক ধন্তবাদ জানাচ্ছি সব চেয়ে আমি বেঈী আনন্দ পাচ্ছি বন্ধুবর তরুণ সাহিত্যিক উমাপদ দাশের কথা স্মরণ ক'রে তিনি আমাকে সব দিক দিয়ে, সব রকমে সাহাধ্য ক'রেছেন। তার কাছে আমি যে কত খণী, তা শুধু আমিই জানি। তাই এতটুকু কতজত।! ব1 ধন্তবাদ জানিয়ে তাঁকে ছোট করতে চাই না****.ত।

নাটক খানা অভিনয়ের উপযোগী ক'রে লেখবার প্রাণপণ চেষ্ট করেছি, তা সত্বেও হয়ত' স্থানে স্থানে হুর কেটে গেছে আশা করি

পরিচালকগণ নৃতন নাট্যকারের সে ক্রটি এড়িয়ে যাবেন এবং তাদের নিপুণ হাতের ছোয়াচ লাগিয়ে দর্শকদের আরষ্ট করতে পারবেন

“মানুষ ভাবে এক হয় আর এক+, আমিও ভেবেছিলাম বইখানা নিতৃ'ল ভাবে ছেপে বের হবে; কিন্তু ভগবানের ইচ্ছা অন্তরূপ। তিনি পশুপতিবাবুকে সে স্থযোগের সধ্্যবহায় ক'রতে দেননি--বারে বারে তাকে কর্মজগৎ থেকে টেনে বার জগ্তে হাত বাড়িয়েছেন? তাই অনেক কিছু ভূল ক্রাট রয়ে গেছে বইখানার মধ্যে আশা করি সহদয় পাঠক- পাঠিকাগণ নিজগুণে ক্ষমা! ক'রযেন।

শেষ কথ।--অভিন্তো, অভিনেত্রীগণ, দর্শকগণ পাঠক-পাঠিকাগণ যদি আমার এই নাটকখান। অভিনয় ক'রে, দেখে পড়ে আনন পান, তাহ'লে আমি আমার সকল পরিশ্রম সার্থক মনে ক'রব।

১১ই জ্যেষ্ঠ, ১৩৫৪ সাল। বিনীত-- বাণেখরপুর। আমতা, শ্ীপুলাল5জ্ঞর ভ্বত্কন্র হাওড়]

নাটকীয় চরিত্র

রাসবিহারী মুখোপাধ্যায় সমর রি কা্চ

মাধব মণ্ডল

মিটু

অমর

পরেশ *** পবন, উপেন, রবি, | যতীন, নন্দ, স্বাম, মুবলারী ). রূমেশবাবু

জ্যোতির্ময় ( বেণী কমল ) বিজয়

নায়েব

কেট মণ্ডল

সাধন কবিরাজ

হরি

পাগল

যুবক

মিঃ বোস *

মালতী

রমা

স্পা ৬৪৬ ভারতী ৪৬৬ কল্পনা রা

পুচম্থগণ

বূপনগরের জবিদার পুত্র

ভ্রাতুদ্পুত্র

সরকার

ভৃত্য

সমরের পুত্ত

জনৈক শিক্ষিত যুবক

রবূপনগরের অধিবাসিগণ

ভারতীর পিতা

জনৈক দেশপ্রেমিক যুবক রামরূপ নগরের স্কুল মাষ্টার নায়েব

এঁ অধিবামিগণ

জনৈক হৃতসর্বগ্ব ব্যদ্ষি জনৈক বিপন্ন যুবক 1

রাসবিহারী বাবুক্গ কন্ঠ ভ্রাতুকপত্রী

মালতীর বন্ধু জ্যোতির্দয়েয় স্ত্রী

1

প্রথম অক

প্রত্থম দৃষ্থয সময় অপরাহ্ন [রাসবিহারী বাবুর কলিকাতার বাঁড়ী। আধুনিক আসবাব পত্রে সুসজ্জিত একটি ডুইং রুমে বসিয়া সমর কি একটা বই পড়িতেছিল। স্বপ্ন। গ্রবেণ করিল তাহ'র বয়স আঠারোর বেশী নয়; দেখিতে স্থন্দর ] স্বপ্না সমরবাবু-_ সমর কে? ( বই হইতে সুখ তুলিয়া ) ওঃ স্বপ্লাদেবী, আসম্মুন। হঠাৎ কি মনে করে? স্বপ্না। মালতীর সঙ্গে একট. দরকার আছে সমর | তা দাড়িয়ে রইলেন কেন, বন্ুন স্বপ্না দেখুন যদি মনে কিছু না করেন, একটা কথা আপনাকে জিজ্ঞাদা ক'দব। সমর। কি? স্বপ্না। আপনি মালতীর দাদ ত;? সমর | সন্দেহ আছে নাকি? স্বপ্না না। তবে-হ্যা দেখুন আপনি, মালতীর চেয়ে বয়সে বড়। সমর তা ত' বটেই।

[১]

সর্বহারার দাবী

ত্বপ্পা। তাহ'লে এখন কথা হচ্ছে মালতী আমার 01888 [7191)0- আমারই সমবয়সী

সমর। বুঝেছি আপনি প্রমাণ করতে চাইছেন যে আপনি আমার চেয়ে বয়সে ছোট

ক্বপ্লা। যখন বুঝতেই পেরেছেন তখন আর আমায় “আপনি, বলবেন না

[ সমর হাসিয়া ফেলিল ]

হাসলেন যে বড়।

সমর | হাসাটা কি আপনার কাছে ৪০, ] 20982) তোমার কাছে সভ্যতার বাইরে।

স্বপ্লা। তা না হ'লেও অকারণে হাসাটা ছেলেমানুষী ছাড়া আর কিছুই নয়।

সমর। আপনার মেজাজটা দেখছি বড় কড়া স্বরে বাধা। একটু চা খেয়ে নিন, সব ঠিক হ'য়ে যাবে

স্বপ্না। মাপ করবেন সমরবাবু। ভদ্রয়ানা নেশাট। এখনও ঠিক আয়ন্বে আনতে পারিনি।

[ সমর পুনরায় মুখ টিপিয়া হাসিল ]

স্বপ্না। আপনার এই ব্যঙ্গোক্তি হাসি সা করবার মত মনের জোর আছে বলেই সত্য কথ। বলতে ভয় পাইনা সমর | 179060090৮9: তে কোন ৪০019 £11] চা

[২]

সর্ঝহারার দাবী

এর মত উপাদেয়, লোভনীয় পানীয়টাকে ৪৮০10 ক'রে চলবে আমি আশা করতেই পারিনা

স্বপা। ভূলে যাচ্ছেন কেন, সবার রুচি ত' আর সমান নয়। আপনার যা ভাল লাগে আমার যে তা ভাল লাগবে একথা ভাবাই ভুল। তাছাডা দেখুন, মদ যেমন নেশার জিনিষ, না! খেলে মানুষ মরেনা, খেলে শরীরের উন্নতির চেয়ে অবনতির সম্ভাবনাই বেশী ; চা ঠিক তাই। সুতরাং এই সব মারাত্মক জিনিষগুলোকে যতই এড়িয়ে যাওয়া যায়, ততই ভাল নয় কি?

সমর কায়দা ক'রে কথা বলতে শিখেছ দেখছি তা একট৷ মিটিং তোমার মত প্রকাশ ক'রলে খানি কট। “বাহবা, পেতে।

স্বপ্না? নামের মোত আমার নেই

সমর। মালতীর মুখে শুনেছিলাম তোমরা নাকি থিয়েটার করবে।

স্বপ্লা। হ্যা। তবে নাম কেনবার জন্যে নয়

সমর | তবে কি জন্যে, জানতে পারি কি?

ন্বপ্না। নিশ্চয়ই পারেন বছর বন্যায় দেশের কি রকম ক্ষতি হয়েছে আশ! করি মে খবরটা রাখেন যাদের ঘরবাড়ী বন্যায় ধ্বংস হয়েছে, ক্ষেতভরা ধান নষ্ট হয়েছে, গরু বাছুর বন্যার স্রোতে ভেসে গেছে সেই সমস্ত হতভাগ্য"

(৩]

সর্বহারার দাবী

দের সাহায্যের জন্যে আমরা অভিনয়ের আয়োজন কঃরেছি। সমর | 9000. 1068 770 909১% ; কিন্তু অভিনয় করবে কারা

[ মালতী প্রবেশ করিল ]

মালতি আমারা

সমর তোমরা!

মালতী হ্যা)? আমাদের নিজেদের লেখা নাটক, আমরাই তার রূপ দেব।

স্বপ্না। তাই আপনাকে অনুরোধ করছি আমাদের অভিনয় দেখতে আপনার যাওয়া চাই।

সমর | মাপ কোরো স্বপ্রা। বাংল] দেশের নাটক, যার মধ্যে খানিকট৷ প্রেম, খানিকটা বিরহ, তারপর মিলনের গরমিল ছাড়া আর কিছু নেই-_এ ধরণের নাটকের অভিনয় দেখবার মত মনের দুর্বলতা আমার নেই।

মালতী আমাদের নাটক প্রেমের কাহিনী নিয়ে লেখা নয়।

সমর | তাহ'লে সে নাটক নাটক-ই নয়।

্বপ্পা। কিছু না জেনে মত প্রকাশ করাটা বিশেষ গৌরবেরও নয়।

মালতী আমি জোর করে বলতে পারি দাদা আমাদের অভিনয় দেখলে তোমার কুচি বদলে যাবে

1৪]

সর্বহারার দাবী

[ পাশের টেবিলের ওপর রিসিতারট। ঝন্ঝন্‌ করিয়া বাজিয়! উঠিল ]

্বপ্রা। মালতী বাজে তর্কে সময় নষ্ট ক'রে লাভ নেই। নৃতন গানের স্বর কেমন হল, শোনাবি চল | [ উভয়ের প্রস্থান ]

[ সমর রিসিভার উঠাইল ] সমর। হ্যালো 1..*.কে 1,.বল ।.*না, আমি ৫২ টাকার এক পয়সাও বেশী দেবন1।.**আমাদের মধ্যে ত' সেরকমই কথাবার্তা ছিল'...ভয় দেখিয়ে বেশী টাকা আদায় করবে ভেবেছ 1...না, অকারণে রাগাটা আমার স্বভাব বিরুদ্ধ। হ্যা, পাঠিয়ে দাও ।..*কাকে 1,.,ও£ আচ্ছা... [ রিসিভার রাখিয়! দিল ]

[ ইতিমধ্যে কল্পন। কখন ঘরের মধ্যে প্রবেশ করিয়াছে সমর জানিতে পারে নাই কল্পন! অতি সম্তর্পণে একটি ডুয়ার হইতে একখ!নি ফটে। বাহির করিল। তাহ কল্পনা সম্রের পাশাপাশি একসঙ্গে তোল! ছবি। তারপর ডয়ার বন্ধ করিতে যাইবার সঙ্গে সঙ্গেএকটু শব হইল | সমরের লক্ষ্য সেদিকে পড়িতেই কল্পনা হাতের ছবিটি পিছনে রাখিয়া টেবিলে ঠেস দিয়া ঘুরিয়া ঈ!ড়াইল ]

সমর | কল্পনা তুমি আবার এখানে এলে কেন ? [€ |]

সর্বহারার দাবী কল্পনা পথ ভুলে এসে পড়েছি। সমর তুমি এখনি এখান থেকে চলে যাও

“কল্পনা কেন? সমর লোকে দেখে সন্দেহ করবে। কল্পন।। ক্ষতিকি।

সমর। তোমার হয়ত ক্ষতি কিছু নেই ; কিন্ত আমার-_

কল্পনা যা সত্যি তা যদি প্রকাশ পায়, পাক। মিথ্য' আবরণে তাকে ঢেকে রেখে লাভই বা কতটুকু

সমর | দেখছ, পশ্চিমাকাশে একখণ্ড মেঘ দেখা দিয়েছে ; এখনি ঝড় উঠবে

কল্পনা | যাঁর মন দিনরাত বঝাড়ের সঙ্গে যুদ্ধ করছে, তাকে বাইরের ঝড়ের ভয় দেখানর চেষ্টা বৃথ। সমুদ্রে শয্য। যার; শিশির বিন্দুতে তার কিসের ভয় সমর বাবু

সমর। তোমার আশ] আকাঙ্খ। দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে তাই তোমায় সাবধান ক'রে দিচ্ছি আর বেশীদূর এগিয়ো ন।। |

কল্পনা তার আগে আমিও এট,কু আপনাকে জানিয়ে রাখি দেশের লোকের কাছে যেদিন আপনার “সমিতির আসল রূপ প্রকাশ পাবে সেদিন থেকে আমারও পথ চলা সুরু হবে নৃতন পথে |

[ ৬4

সর্বহারার দাবী

সমর | ভূলে যাও সে সব কথা। শুধু মনে রেখো যা ক'রেছিলাম তোমাদেরই ভাল'র জন্যে।

কল্পনা না। কারণ তার পিছনে যে কি ছিল তা আমার অজান। নেই।

সমর। (দৃঢত্বরে) কল্পনা।

কল্পনা আচ্ছা বলতে পারেন সমরবাবু, দেশের কতগুলো নারীকে আপনার মন্ত্রে দীক্ষিত করেছেন ?

সমর ভয11%% 0০ ৮০৮. 10981 ১) ৪৪৮ ?

কল্পনা কতগুলো নারীর সর্বনাশ ক'রেছেন।

সমর। ৪106 ৪0.

কল্পনা ওস্বর আমি চিনি। ওতে ভয় পাবে তারা-_যারা আপনাকে চেনে না।

সমর। তুমি কি জান, কতটুকুই বা জান আমার সম্বন্ধে? কল্পনা। যেটুকু জানি আপনাকে কোন ভদ্র মহিলার পাশে দেখলে রিভলবার নিয়ে সু করতে ইচ্ছা করে। [ সমর “হো” 'হো” করিয়া হাসিয়। উঠিল ]

কল্পনা ছি, আপনার হাসতে এতটুকু লজ্জা করছেন |

লমর। লজ্জা বেচারা কল্পনা, তোমায় দেখলে বড় মায়। হয়।

কল্পনা'। আমাদের প্রথম দিনের পরিচয়ের কথা মনে পড়ে?

[৭]

সর্ধবহারার দাবী

সমর | তা পড়ে বৈকি, তুমি চোখে আবেশ মাখান একথান। হাল-ফ্যাসানের শাড়ী পরে আমার হাতে হাত মেলালে ; আর বীণা, মায়া, রেবা পাশ থেকে মুচকি হেসে সরে পড়ল

কল্পনা তখন বুঝতে পারিনি যে নারীকে নিয়ে খেলা করাই আপনার ব্যবস!।

সমর তার আগে আমিও জানতাম না! যে নারীর ভালবাস। শুধু মরীচিকা, ছলনা আর অভিনয়, অ-ভি-ন-য়। তার! যতটুকু ভালবাসার কথা বলে, শুধু নিজেদের কাজ হাসিল করবার জন্যে |

কল্পন1। ভুলে যাবেন না আপনি নারী জাতিকে অপমান করছেন |

সমর। তোমরা থাকবে বেচে শুধু মাতৃত্বের গৌরব নিয়ে। দেশের কাজে নাম তোমাদের সাজেনা | তাছাড়া, তোমরা মনে প্রাণে বেশ জানতে এই “সমিতি তোমাদের জাগাতে পারবেনা যদিনা তোমরা নিজেরা সচেতন হও। তবুও কেন ছুটে গিয়েছিলে আলেয়ার পিছনে?

কল্পনা আপনি নারীর ছুঃখ-দারিপ্র্য, অভাব-অভিযোগ দুর করবেন, আর আমর আপনার পাশে ধীড়িয়ে সে কাজের সাহায্য করব--সহকম্মারূপে ; এই উদ্দেশ্যেই 'সমিতিতে' যোগ দিয়েছিলাম

[৮]

সর্বহারার দ্বাবী

সমর তাই ছিল আমার লক্ষ্য; কিন্তু তোমরা আমায় সে পথ থেকে দুরে সরিষে নিয়ে গেছ।

কন্পন।। আমরা?

সমর হ্যা, তোমরা তোমাদের হাত ধরে যখন কর্মক্ষেত্রে নামলাম তোমাদের মত পথ আমার পথ দিল ভুলিয়ে ভূলে গেলাম কর্তব্য ; নামলাম নীচুতে ; তোমরাও হাসতে হাসতে হাতে হাত মেলালে।

কল্পন1!। দিনের পর দিন ভালবাসার কথা বলে আমাদের মনকে দুর্বল ক'রে হাঁর সেই দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে এমন কি বিয়ের প্রলোভন পর্য্যন্ত দেখিয়ে আমাদের জীবন ব্যর্থ ক'রে দিয়েছেন

সমর। তারপর সর্বস্ব কেড়ে নিয়ে, রিক্ত হাতে বিদায়ও দিয়েছি।

কল্পনা তাই আমি আর আপনাকে নারীর জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলবার সুযোগ দেবন।।

সমর। কিবললে?

কলন।। আপনার চরিত্রের গোপন রহস্য আর চেপে রাখব না

সমর কল্পনা

[সমর কল্পনার ডান হাতখানি চাপিয়া ধরিতেই হাতের ফটোখানি দেখিতে পাইল] সমর ছবি আমার ড্রয়ারের মধ্যে ছিল, তুমি কোথায় পেলে? কল্পনা ড্রয়ার থেকে বের ক'রে নিয়েছি।

1 ৯]

সর্বহারার দাবী

সমর | রেখে দাও কল্পনা না। ছবির ওপর আপনার যেমন অধিকার আমারও ঠিক তাই। সমর। অধিকার অনধিকারের কথা হচ্ছেনা; বল তুমি দেবে কিনা কল্পনা ন1। সমর কল্পনা ! কল্পনা চোখ রাঙিয়ে যাদের বশ করা যায় আমি সে দলের নই। সমর দাও বলছি-_ [ জোর করিয়। কল্পনার হাত হইতে ছবিখানি ছিনাইয়! লইবার চেষ্ট। কারল। টানাটানিতে ছবিখানির মাঝামাঝি ছি'ড়িয়া গেল ] সমর। 09৮ ০9৮ চোরকে আমি প্রশ্রয় দেবনা। কল্পনা ন1] আমি যাবন।। সমর | যাবেনা? কেন কি জন্তে এসেছ? কল্পনা আমি আমার দাবী নিয়ে এসেছি। সমর। কিসের দাবা? কল্পন | আপনার পাশে দাড়াবার | লমর। না) তা হবেনা হ'তে পারেনা কল্পনা কেন?

[ ১০].

সর্বহারার দাবী

সমর। যা কোনদিন সম্ভবপর নয় সে অলীক জিনিষটাকে বাস্তবে পরিণত করবার চেষ্টা ক'র না, কল্পন] !

কল্পনা কিন্তু সে পথ ত' আপনি-ই পরিঞ্ষার ক'রে দিয়েছেন

সমর | ০০ ৪:১৩ €01706 ৮০০ £9:. আমি তোমার কোন কথা শুনতে চাইনা, তুমি যাও

কল্পনা নিজের জন্যে আপনার কাছে কোনদিনই আশ্রয় |ভগ্ণা করতে গাসতাম না আজ আমি ভাবী সন্তানের মা হ'তে চলেছি; তাই সেই দাবী নিয়ে ছুটে এসেছি।

সমর | আমায় তুমি টলাতে পারবেনা ভুমি যাও; নিজের পাপের প্রায়শ্চিত্ত কর পথে, মাঠে, ঘাটে যেখানে খুসি বাসা বেধে আমার কাছে আর কোনদিন আসবেনা_-এই শেষবার বললাম 1,..হ্যা শোন, টাকর দরকার হ'লে জানিয়ে |

কল্পনা অনেক প্রলোভন ত, দেখিয়েছেন আবার টাকার প্রলোভন--এর অভিনয় কেন। আপনি আমাকেই যখন অন্বীকার করছেন আমিই বা আপনাকে স্বীকার করতে যাব কেন। আমি চললাম। (সম্মখের দিকে দু'এক পা বাড়াইল, তারপর ঘুরিয়া') ইচ্ছ! ছিল যাবার আগে আপনার পায়ের ধুলো নিয়ে যাব, কিন্তু--

সমর। না, তার আর দরকার হবেনা। তুমি আমার কেউ নও, কিছু নও | জানি না জীবনের কোন অশুভ মুহুর্তে তোমার

[ ১১]

সর্ধহারার দাবী

সঙ্গে আমার দেখা হ'য়েছিল। তুমি আমার জীবনের অভিশাপ

কল্পনা উঃ ভগবান! না, আমি আর সহা করতে পারব না। আমি এসেছি জোয়ারের জলে আবার জোয়ারের জলেই ভেসে যাব... সব কলঙ্ক ধুয়ে মুছে যাবে, বাইরের আলো বাতাসে প্রকাশ পাবার সুযোগ দেবনা! কোনদিন

[ কল্পন! প্রস্থানোগ্ভত! হইল কিন্তু কি ভাবিয়া! পশ্চাৎ ফিরিয়া পরে উদভ্রান্তবৎ প্রস্থান করিল ]

[ বুদ্ধ ভদ্রলোক রমেশবাবু প্রবেশ করিলেন ।, তীহার হাতে একটি খোঁল। চিঠি ]

রমেশ সমর !

সমর। একি! আপনি দেহ নিয়ে কোন ভরসায় উঠে এলেন !

রমেশ তোমাকে খুঁজে না পেয়ে আমাকে এখানেই আসতে হ'ল বাবা!

সমর কেন?

রমেশ। জ্যোতি চিঠি পাঠিয়েছে সবট1 পড়বার মত ধৈর্য্য আর রইল না। তাই-_

সমর। কই, দিন চিঠি

রমেশ এই নাও বাবা! (সমরকে চিঠি দিলেন) শেষের দিকটা একবার পড়ে শোনাতে পার।

[১২]

সর্বহারার দাবী

সমর ! (চিঠি পড়িতে লাগিল). দেশের কাজ আমার কাছে সবচেয়ে বড। তাই আমি সে ডাকে সাড়া না দিয়ে পারলাম না। আপনার দানের মধ্যাদা হয়ত রাখতে পারিনি, ক্ষমা করবেন ইতি-_

£জ্যো তিশ্ময়

রমেশ ক্ষমা করব? ইডিয়টু আমি তোমায় ক্ষমা করব। একটা পাবলিক মিটিংএ গরম গরম কতকগুলো বুলি আগুড়ে নাম কিনতে গিয়ে যারা জেলে যায় তাদের দ্বারা স্বাধীনতা আসবে না,_আসতে পারে না। তার! দেশ- সেবার নামে জুয়াচুরী খেলছে। তাদের উত্তেজনা বালির বাঁধের মত ক্ষণস্থায়ী

সমর আপনি এত বেশী উত্তেজিত হবেন না। এতে আপনার অসুখ বেড়ে যাবে। আপনার খাবার সময় হয়েছে, চলুন

রমেশ। তোমার এই সময়ই আমায় পাগল ক'রবে সময়ে শুতে হবে, খেতে হবে তা৷ ওযুধই হোক আর যাই হোক। চিন্তা ক'রব, ছটো৷ কথ! বলবো তাও-_

সমর আপনার শরীরের অবস্থা বিশেষ ভাল নয় কিনা, তাই-_

রমেশ। বলতে পার বাবা, আমার বেঁচে থাকায় কি লাভ? মা-মরা মেয়ে কোলে পিঠে করে মানুষ করলাম তাঁরপর-_

[ ১৩]

সর্ধহারর দাবী

সমর | পব কথা এখন থাক।

রমেশ আমি যে জামার মনের ছুঃখ কিছুতেই চেপে রাখতে পাচ্ছিনা ভারতীর বিয়ে না দেওয়া! এর চেয়ে যে ছিল ভাল। আমি তাকে হাতে পায়ে বেধে জলে ভাসিয়ে দিয়েছি

সমর ভারতীর সম্বন্ধে আপনি এত বেশী ভাববেন না। সে যাতে সব কিছু ভুলে থাকে আমি সেই চেষ্টাই করছি; আমি তার হাতে অনেক বড় কাজ তুলে দিয়েছি; নিজের হাতে নাসিং শেখাচ্ছি।

[ ভারতী প্রবেশ করিল। তাহার হাতে এক টুকরা কাগজ। বেশভূষ! অতি সাধারণ ]

ভারতী। সমরদা, মিকশ্চার আমি তৈরী করতে পারবন1।

এই নিন আপনার প্রেশক্রিপশান্‌। [ কাগজটা সমরকে দিল ]

সমর (ভারতীর মুখের দিকে চাহিয়া) ছু বুঝেছি ; কি জানেন রমেশ বাবুঃ ভারতী এত নার্ভাস যে আপনার ওষুধ নিজের হাতে তৈরী করতে ভয় পায়। আচ্ছা আমিই মিকশ্চার তৈরী করতে চললাম প্রস্থান ]

রমেশ'। তুমি যে এত ছুরর্বল তা ত' জানতাম না মা। ওষুধের সঙ্গে বদি খানিকটা বিধ-ই মিশিয়ে দাও কিছু ক্ষতি হবে না।

[১৪]

সর্ধহারার দাষী

আমি ত' আর দেহটা বেশী দিন টেনে চলতে পারবনা যত শীগ.গির ঘুম পাড়িয়ে দিতে পার ততই ভাল

ভারতী বাবা!

রমেশ। না মা, আমি ভাল হ'য়ে উঠব তোমাদের এত পরিশ্রম, এত যত্ব কি সব বার্থ হ'বে। কিছু ভেবোনা মা। ******মেয়েটার মুখের দিকে চেয়ে আমি যে কিছুতেই স্থির থাকতে পারি না। ওষে চিরকাল অভিমনিনী অভিমানে কোন কথ মুখ ফুটে বলতে পারেনি বলে কি আমি বুঝতে পারিনি ওর মনের কথা কিন্তুকি করব; যা হবার তা

হয়েছে [ চোখের কোণে ছু'এক ফে।টা জল দেখা দিল ]

ভারতী বাবা তুমি কাদছ।

রমেশ | কই, না মা।

ভারতী। আমি সব সহা করতে পারি; কিন্তু তোমার, চোখের জল সহ্য করতে পারিনা তুমি যাও !

রমেশ। এই অবাধ্য বুড়ে৷ ছেলেকে যত পার শাসন কর কিন্তু তোমার বুকের মাঝে যে আগুন জ্বলছে মুখের হাসি দিয়ে সে আগুন চেপে রেখে আর আমায় পুড়িয়ে মেরো না ম1!

[ ধীরে ধীরে প্রস্থান ]

[ মিঃ বোস প্রবেশ করিল। পরণে পায়জাম। টিলা পাঞ্রাবী ]

মিঃ বোস . এইটাই কি সমর বাবুর ডুইং রুম 1 ১৫ ]

সর্ধহারার দাবী

ভারতী হয!

মিঃ বোস। আপনি কি ত্ার-_

ভারতী। আমি তার ল্যাবরোটারীতে কাজ করি।

মিঃ বোস। ল্যাবরোটারী? না বরং বলুন আপনি তার

“দমিতির' কাজ করেন।

ভারতী কিসের সমিতি ?

মিঃ বোম সমর বাবুর সঙ্গে আপনার পরিচয় কত দিনের ?

ভারতী। ত]1 এক রকম ছোট বেলা থেকেই তবে মাঝখানে কয়েক বছর আমর বিচ্ছিন্ন হ'য়ে পড়ি।

মিঃবোস। পময় টুকুর মধ্যে তিনি “নারী প্রগতি সঙ্ঘ' গঠন করেছিলেন তা বুঝি জানেন না।

ভারতী “নারী প্রগতি সম্ুব' সে আবার কি?

মিঃ বোস। যে সমিতি নারীর নারীত্ কেড়ে নিয়ে পথে ছেড়ে দেয়। |

ভারতী আপনার কথা আমি ঠিক বুঝতে পারছি না; আপনি বন্থুন, আমি সমরদাকে ডেকে দিচ্ছি

মিঃ বোস। না, আমার জন্যে আপনাকে এত ব্যস্ত হ'তে হবে না। যথা সময়ে তিনি আসবেন

ভারতী। তা আপনি সমরদা'কে চিনলেন কেমন ক'রে?

মিঃবোস। অতবড় মহাপুরুষকে না চেনাই লজ্জার কথা।

[১৬]

সর্বহারাত্র দাবী [ গুধধের শিশি হস্তে সমরের প্রবেশ]

সমর। তুমি নিশ্চয় জেনে! ভারতী, ওষুধ আমার ব্যর্থ হবে না। রমেশবাবু নিশ্চয়ই ভাল হ'য়ে উঠবেন। তুমি যাও, এই ওষুধট! খাইয়ে দাও গে।

[ সমর ভারতীর হস্তে শিশিট। দিল; ভারতী চলিয়। গেল ]

সমর। (মিঃ বোসকৈ লক্ষ্য করিয়া) কে ? আপনি কে ? আপনাকে ত” আগে কোথাও দেখেছি ব'লে মনে হচ্ছে না।

মিঃ বোস। (পকেট হইতে একটি কার্ড বাহির করিয়া) এই দেখুন, আমি এই ঠিকানা থেকে আসছি।.

সমর (কার্ড দেখিয়া) মিস্‌ রায় আপনাকে পাঠিয়েছে?

মিঃবোস। হ্্যা। দেখুন, আমাকে যে চিনতে পাচ্ছেন না সে দোষ আপনার নয়। ইংল্যাণ্ড, জাশ্মানী, জাপান, রাশিয়া, আমেরিকা এই সব দেশ ঘুরতেই ত' আমার এতখানি বয়স কেটে গেল। মিস্‌ রায়-যার সঙ্গে আপনার 1০5৪ হয়েছিল, এবং যার জন্যে, 002:07806 ৪3৪6৪: আপনি 2907761)]7 ])8710)91) করতে বাধ্য হচ্ছেন) আমার এক জাপান $:192,0 চেয়েছিল তাকে বিয়ে করতে আমি মিস্‌ রায়কে একথা বলেছিলাম ; 0০ 819 01077 88:99. ] 80) ৪0]শয 101 0078৮,

সমর। ওঃ, আপনি দেখছি মিম্‌ রায়ের হিতাকাজ্ষী। | [ ১৭]

সর্বহারাঁর দাবী

মিঃ বোন। নিশ্চয়। ্াপনি জানেন না, আপনার সঙ্গে তার ভালবাসা হবার আগে আমি তাকে ভালবেসেছিলাম।

সমর | ০০ ৪:98, 8090].

মিঃ বোস। ০০] ! কি বলছেন আপনি?

সমর | মিস্‌ রায় একদিন আমায় বলেছিল, সে কোনদিন কাউকে ভালবাসে না।

মিঃ বোস। হাঃ হাঃ হাঃ।

সমর | হাসছেন কেন?

মিঃ বোল মিস্‌ রায় তার ₹9৮:60 1০৮৪ এর কথা কেমন ক'রে ভুলল একথা ভেবে ।-_যাক্‌, এর জন্যে আমি বিশেষ

খে পাইনা কি জানেন সমরবাবু, গত বছর ইংল্যাণ্ডে

ঠিক এই মাসেই যখন আমি তিনদিন সমানে মদ খেয়ে চলি, আমার পাশে বসে কত ০9776 190 আমার সঙ্গে 10৮০ করতে 101" 00010176 কত চেষ্টাই না ক'রেছিল। কিন্তু আমি তাদের মে 01079:৮201 দিইনা। কারণ আমি জানি, মিস্‌ রায় আমার জন্যে প্রতীক্ষা করছে সুদূর 10801561900 |

সমর যান, বাজে কথা শোনবার সময় আমার নেই।

মিঃংবোস। বাক্ষেকথা? কি যেবলেন আপনি! আমার মুখের এই সব কথা শোনবার জন্যেই বিলেতের মেয়েরা দিনের পর দিন রীতিমত আমাজে 76৫68$ ক'রেছে।

[ ১৮ 3

সর্ধহারার দ।বী

সমর | তবে সেইখানেই যান ন1-_

নবীন। ( পকেট হইতে একটি ব্যাগ বাহির করিয়া) 'এই ব্যাগটা দেখছেন। একদিন হজার হ।জার টাক! এর মধ্যে ছিল। তখন ছুনিয়াটাকে দেখেছিলাম রঙিন চোখে আজ ব্যাগ শৃহ্য ; তাই আমার কাছে ছুনিয়াট৷ যেন ফাক! ফাকা ঠেকছে।

সমর আপনি মদ খাওয়া এখনও ছাড়তে পারেন নি?

নবীন। না) বরং মাত্রা বেড়েই চলেছে

সমর। টাকা পাচ্ছেন কোথায়?

মিঃ বোম। পাইন! বলেই ত' আপনার কাছে এসেছি।

সমর মিস্‌ রায়কে আমি 220960015 যে টাকা দিই, সে কি আপনাকে মদ খাবার জন্যে দান করবে?

মিঃ বোস। নিশ্চয় | সে আমাকে ভালবাসে আমার জন্কে কি-না করতে পারে।

সমর ! ওঃ, আমি এখনি তাকে ফোনে জানিয়ে দিচ্ছি--টাকা আমি দেব না।

মিঃ বোস [30086 206, সমরবাবু। মিস্‌ রায় আমাকে বলেছিল, এসব কথা আপনাকে না বলতে; আমি ভুলে গিয়েছিলাম ।,..কাল বৈশাখীর ঝড়ের মত কয়েক সেকেণ্ডের মধ্যে আমি আবার হয়ত এদেশ ছেড়ে চলে যাব; কিন্ত

১৯]

সর্বহারার দাবী

মিস্‌ রায়কে মেরে রেখে যাব ন11.....তাকে আমি পাঠিয়ে দেব। ৪০০৫ 107৪--- [ বাহিরের দিকে দু'এক পা! বাড়াইল ] সমর। একটু দাড়ান। ( পকেট হইতে পঞ্চাশ টাকা বাহির করিয়া) আপনি যখন টাকার জন্তে এসেছেন আপনাকেই তা নিয়ে যেতে হবে এই নিন্‌__ [মিঃ বোসকে টাকা দিতে ষাইবে এমন সময় ভারতী প্রবেশ করিল] ভারতী না। টাকা আপনি দিতে পাবেন না। সমর কেন? ভারতী বলুন, টাক কাকে দিচ্ছেন। সমর। পরে শুনবে। ভারতী না, এখনি আমি শুনতে চাই সমর। (দৃঢম্বরে) ভারতী | (মিঃ বোসকে লক্ষ্য করিয়া) এই নিন্‌। [ মিঃ বোস টাক লইয়া একবার ভ।রতীর দিকে চাহিযা দেখিপ; স্ারপর সমরের চোখে চোখ পড়িতেই তিক্ত হাসি হাসিয়া নীরবে বিষ্বায় অভিবাদন জানাইয়! প্রস্থান করিল ]

সময় বল কি বলছিলে। ভারতী আমি জানতে চীই লোকটি কে? সমর লাভ।

[২৭৭

সর্ববহারার দাবী

ভরতী। লাভ কিছু নেই, শুধু আগ্রহ | .

সমর সব বিষয়ে এত আগ্রহ থাক ভাল নয়।

ভারতী। তাজানি। আর এওজানি যিনি অগাধ সম্পত্তির মালিক হ'য়েও গত 011518এ সহরের অলিতে গলিতে দিনের পর দিন লোক মরতে দেখেও অবজ্ঞার হাঁপি হেসেছেন, সোজা চলে গেছেন 7 অথচ একট পয়সাও বাজে খরচ করেন নি-_

সমর | তাই অতগুলো টাকা একটা অজানা, অচেনা লোককে কেন দিলাম, তার কৈফিয়ত চাইবার লোভ সামলাতে পারলেন না, না? ওকি আমার মুখের দিকে হা ক'রে চেয়ে রইলে যে 1......না, আমি বলবনা।

ভারতী কেন?

সমর আমার অতীতের কথা তোমার জানবার অধিকার নেই ব'লে।

ভারতী। তাহলে আপনার “নারী প্রগতি সজ্ঘের” সব কথা সত্য?

সমর আমার সমিতির কথা কে তোমায় বললে ?

ভারতী। ছুষ্ট, বাতাস।

সমর ভারতী! তুমিযা শুনেছ, ভুল শুনেছ-__-তা সব সতা নয়। আমি ঘুমের ঘোরে স্বপ্ন দেখেছিলাম | সেই স্বপ্নে যে ঘরখানা বেঁধেছিলাম, তা বালুচরের ওপর। তাই

[ ২১]

সর্াহারার দাবী

একট! দম্ক। হাওয়ায়, সব ভেঙ্গে চুরমার হ'য়ে গেল। শেষ পর্য্যন্ত যে খুঁটিটা! আকড়ে ধরে রেখেছিল ঘরটাকে- তাঁকেও একদিন বিদায় দিলাম। পড়ে রইল শুধু হাড় ক'খানা।।

ভারতী আপনার এসব কথ। আমি কিছু বুঝতে পাচ্ছি না।

সমর | তারপর বুদিনের পরিচিত একট সবল, সুস্থ লতাকে দেখে আবার তার বাঁচতে ইচ্ছ। হ'ল।

ভারতী সমরদা?

সমর কিস্তুনির্কবোধ জানেনা-_-এঁ লতা একবার যাকে আশ্রয়

_ করেছে, তাকে ছেড়ে দাড়াবে কেমন ক'রে আর একজনের

পাশে

ভারতী। আপনি নিজেকে হারিয়ে ফেলছেন সমরদা।

সমর। না হারাইনি-হয়ত হারাব। ভারতী, একটি বছর আগেকার কথ স্মরণ কর; সেই বিজয়া দশমীর দ্িন--কি বলেছিলে আমায়।

ভারতী। পুরানো দিনের পুরানো স্মৃতির কথা, আজ আর নূতন ক'রে টেনে এনে লাভ নেই। তা ভুলে যাওয়াই ভাল।

সমর ভুলব কেমন ক'রে ? আমি যে স্মৃতির”্ই পুজারী |

ভারতী ।. ভূলে যাবেন ন। সেদিন আর আজ, এক নয়।

সমর। জানি, আর এও জানি, তোমর! ভালবাসা জান না।

[ ২২]

সর্বহারার দাবী

জান শুধু ভালবাসার অভিনয় করতে; আর বাপ-মার আদেশ মাথায় শিগ়ে তাদেরই বেছে দেওয়া পুতুলের গলায় মালা দিয়ে, সারাজীবন দুঃখের বোবা বয়ে বেড়াতে

ভারতী না-__না-না। আপনি আমার দিকে অমন ক'রে এগিয়ে আসবেন না ॥। আমার বড় ভয় করছে।

সমর। কেন, কিসের ভয়? কলঙ্কের? চাদেও কলঙ্ক আছে। চল ভারতী, আমর! কোথাও চলে যাই

ভারতী। চলেযাব, কেন?

সমর। লোকচক্ষুর অন্তরালে আমাদের ঘর বাঁধব। যেখানে থাকব শুধু আমি আর তু-মি।

ভারতী না, তা হয় না।

সমর। কেন হয়না ভারতী? তুমি কি আমায় কোনদিন ভালবাসতে না?

ভারতী বাসতাম, এখনও বাদি, তবে এখনকার ভালবাসা আর তখনকার ভালবাস এক নয়। আমি আপনাকে শ্রদ্ধা করি, ভক্তি করি। আপনি যে আমার কাছে আজও দেবতার মতই আদর্শ, আমার জীবনের মত অমূল্য, আমার গর্ব ক'রে বলব|র মত সম্পদ

সমর | ভারতী, আর কি আমরা সেই পুরানো দিনগুলোকে ফিরে পেতে পারিনা ?

ভারতী। না।

[২৩]

সর্বহারার দাবী

সমর না? তারতী। হ্যা। দেখছেন না আজ আমি আপনার মামনে কি

বেশে দড়িয়েছি। সমর। তবে কি ভালবাসার জগতে কোন দাম নেই ? সমাজের দুটো! মন্ত্রই তোমার কাছে বড় হ'ল? তাকেকি তুমি

অস্বীকার করতে পার না ভারতী? ভারতী। না। আমিধে হিন্দুর মেয়ে, হিন্দুর বৌ। তাই

এই সিন্দুরটাকে মানি, বিশ্বাস করি। আর ভগবানের কাছে সর্ধবদাই এই প্রার্থন। করি, ভগবান! একে যেন মুছোনা। শ্মশান চিতায় দেহখান। যেদিন ছাই হয়ে যাবে, সেদিন এর অস্তিত্ব বিলীন কোরো, তার আগে নয়?

সমর জাঁনত ভারতী, জগতে একল৷ দীড়াবার মত সাহস যে আমার নেই!

ভারতী আর এও গনি আমি ছাড়া অপর কেউ আপনার পাশে ফীড়ালে, সামলাতে পারবেনা তাই আমি লোকনিন্দা, সমাজের ভয়, সব কিছু মাথায় পেতে নিয়ে আপনার পাশে দাড়াব- ছোট ভগ্নীর মত।

সমর! ভারতী, তুমি কি বলছ!

ভারতী। দাদার পাঁশে দীড়াবার মত সাহসটুকু কি ছোট বোনের থাকতে নেই ? [ মর কি যেন বলিতে যাইতেছিল ; ভারতী আর দীড়াইতে প1রিল না, চলিয়া গেল ]

[২৪]

সর্ধহারার দাবী

[ অপর দিক দিয়! মালতী মাধব মণ্ডলের সহিত

কথা বগিতে বলিতে প্রবেশ করিল ] $

মালতী হ্যা, আনুন /। এঘরে বসবেন আসুন সমর। ইনি কে মালতী? | মালতী। আমাদের সরকার মশায়

সমর। ওঃ। আপনি রূপনগর থেকে আসছেন ? মাধব। হ্যা বাবা"!

সমর। বাবা ভাল আছেন ত'?

মালতী। রমাদির আবার কথা ছিল-_

মাধব। রমা, কান্থু হুজনেই এসেছে মা!

মালতী কতদিন আমি তাদের দেখিনা বিয়ের পর সেই যে জামাই বাবু নিয়ে চলে গেলেন, তারপর--্থ্যা সরকার

মশায়, জামাই বাবু এসেছেন ত'? মাধব। সেআরকি বলব মা।

সমর। মাধববাবু, আপনি কি তবে কোন অমঙ্গল-_

মাধব। সে কথা আর তুলবেন না৷ খোকাবাবু। রমামাকে যে আঘাত ভগবান দিয়েছেন তাঁর প্রত্যেকটি ঘ! কর্তাবাবুর

বুকের প্রত্যেকটি হাড়কে চুরমার করে দিয়েছে।

সে দুঃখ আমি দেখতে পারিনা; মাঝে মাঝে ভাবি অন্থয কোথাও চলে যাই, কিন্ত যেতে পারিন। তাকে একলা

[ ২৫]

সর্বহারার দাবী

অসহায় অবস্থায় ফেলে আপনারা চলুন, আপশাদের ভার আপনারা নিন, “পুরাতন ভূত্যকে' ছুটি দিন।

4 [ এমন সময় বাড়ীর চাকর মিটু প্রবেশ করিল ]

মিটু। কি হয়েছে বাবু আপনাদের? মায়ের আমার চোঁখে জল কেন? সমর | মিটু ওরে মিটু-__

| শ্বর গাড় হইয়া আসিল, সমর আর কৌন কথা কহিতে পারিল না]

মিটু। এতদিন আপনাদের সেবা করে এলাম; তবে আজ কেন আমায় দূরে ঠেলে রাখতে চাও খোকাবাবু ?

সমর আমাদের সর্ধবনাশ হয়েছে মিটু--রমার পি'খির সিন্দুর মুছে গেছে।

[২৬]

তিতীয় অন্ক প্রথ্থম দৃশ্য

[ বছর কয়েক পরের ঘটনা] | ' সময়--প্রাতঃকাল [ রূপনগর-_রাঁসবিহারী বাবুর বিবার ঘর। তারই সম্মথে একটি : ফুলের বাগান। দেশী-বিদেশী নামজান! অজানা কতকগুলো ফুল এদিক ওনিক ফুটিয়া রহিয়াছে। মালতী গহিতেছিল -

গীত

আজ আর কোন কথ! নয়__শুধু গান, শুধু গান। (মোর) অস্তরে সে কোন্‌ পথিক জাগালো রে মধুতান। ফান্ন জ্যোছনাতে, ফুলভরা আডিনাঁতে__ কে সে মোরে অভিসারে টানে--ভুলায়ে গো মোর গ্রাণ » পিউ পিউ পাপিয়া যে গায় ( মোর) হৃদয়ের শ।খে শাখে, ডাক দিয়ে বলে ষেন মোরে জয় কর তুমি তাকে। যারে কতু দেখি নাই, ( তারে ) মনে মনে কেন চাই, তারি লাগি কেন আজি মোর জবাথি ছ'টি রিয়মান |

[২৭]

সর্বহারার দাবী [ গান শেষ হইবার পর বছর বারো! বয়সের একটি ছেলে বাগানে গ্রবেশ করিল। মালতীফে দেখিয়া পাশ কাটাইবার চেষ্টা করিল; তার আগেই মালতীর চোখে চোখ পড়িল ছেলেটির নাম কান ]

মালতী কানু, এতক্ষণ কোথায় ছিলিরে?

কানু পান। তুলতে গিছলুম যে।

মালতী এ্যা! পান। তুলতে গিছলি, কেন 1? কে বলেছিল তোকে যেতে? উত্তর দিচ্ছিম্‌ না যে বড়, আর যাবি কখনো ?

কানু কমলদা যে আমায়

মালতী পচা পুকুরে নেমে পানার ধ্বংসযজ্ঞ করবার অর্ডার দিয়েই সরে পড়লেন এই ত?

কানু না, তিনি আমাদের সঙ্গে জলে নেমে পানা তুললেন যে।

মালতী আমি তোকে কতদিন নিষেধ করেছি সমস্ত বাজে কাজে যাবিনা, তবুও-_

কাছু। রমাদি কেন তবে কমলদার সঙ্গে মমিতির সব কাজে এগিয়ে যায়?

মালতী। কেন যায় তা তোর রমাদিকে জিজ্ঞাসা করিস্‌। এসব বাজে কাজে হৈ হৈ ক'রে ঘুরে বেড়ান আমি মোটেই

পচ্ছন্দ করিনা [২৮]

সর্ববহার!র দ্বাবী [ কমল বাহির হইতে ভাকিপ- 'কাহ-কা' ]

কানু এঁ আমায় কে ডাকছে ন! রাঙাদি, আমি যাই। প্রস্থান ] [ কয়েক সেকেগ্ডের মধ্যে ফিরিয়। আসিয়। ] কানু রাঙাদি, কমলদা আসছেন মালতী। আনুন না, তাতে হ'য়েছে কি।

[ কমলের প্রবেশ লম্বা চওড়া চেহারা ; রং ফর্সা। পরিধানে খদ্দরের জাম! কাপড়। আর মাথায় 'জয়-হিন্দ' টুপি ]

কাম্। দেখুন কমলদা, আজ আমার রাঙাদি আমার উপর বড্ড বেশী রেগে গেছে।

কমল। কেনরে?

মালতী ওর কথা আর বলবেন না। যত বড় হচ্ছে, ওর ছুষ্টমী যেন দিন-দিন বেড়েই চলেছে

কানু বারে কখন আমি হুষ্ট,মী করলাম্‌।

মালতী। পড়াশোনার নাম নেই, শুধু-_

কান্থু। বেশ এই আমি চলর্লাম। দিনরাত শুধু বই নিয়েই বসে থাকব। [ মুখ ভার করিয়! চলিয়। গেল ]

কমল | মালতী দেবী, কান্থু এমন কি অন্যায় করেছে, যার জন্যে-- মালতী। আপনি তা বুঝবেন না।

২» ]

সর্ধহারার দাবী

কমল কিছু না বুঝলেও এটুকু বুঝেছি, আপনি আমাদের এই 'মিতি'কে শুনজরে দেখেন না কাছু আজ এতটা বেল। পর্ধ্স্ত সমিতির কাজে আটকে ছিল বলে আপনি তার ওপর অসন্তুষ্ট হয়েছেন এতে যদি তার কিছু অন্যায় হয়ে থাকে, আমি তার হয়ে আপনার কাছে ক্ষম! চাইছি

মালতী কমলবাবু আপনি আমায় এভাবে অপমান করছেন কেন?

কমল। অপমানের কথা নয়, শুধু আপনাকে বুঝিয়ে দেওয়া আমাদের পথ, লক্ষ্য সাধনা--দেশের কল্যাণেরই কামনা

মালতী | আপনি কি মনে করেন পানা তোলা, মাটি কেটে পথ ঘাট পরিষ্কার কর আর বনজঙ্গল কেটে ফেলার ভিতর দিয়ে দেশের স্বাধীনতা আসবে ?

কমস। তা না এলেও কোন বড় কাজে হাত দেবার আগে ছোটর মধ্যে দিয়ে সুরু করতে হয়। যাক নিয়ে আপনার সঙ্গে তর্ক করবনা কেননা আপনি এখানকার দু'দিনের অতিথি ; আবার ছু'দিন পরেই চলে যাবেন।

মালতী না আমি আর রূপনগরকে ছেড়ে কোথাও যাব না।

কমল আপনি ত' কলকাতার কোন 'একটা বিশিষ্ট কলেজে পড়তেন শুনেছি তা হঠাৎ অদ্ধঈীপথে ব্রতভঙ্গ করবেন

|

সর্বহারার দার্ব

কেন? রূপনগরে এমন কি আছে, যা আপনাদের মত শিক্ষিতা নারীকে ভুলিয়ে রাখতে পারে ?

মালতী কি জানিঃ কেন আমার মন আর রূপনগরকে ছেড়ে যেতে চায় না। এর আঁকা, বাতাস, মাটি, জল, আলো, সবাই আমায় ভালবাসে তাই এদের ছেড়ে যেতে কিছুতেই আমার মম চায় ন। |

কমল আপনার ত' ভারী গায়ের দিকে টান দেখছি

মালতী গায়ে থাকার ইচ্ছায় গায়ের প্রতি টান কোথায় দেখলেন বলুন ত? আপনি গ্রামের মঙ্গলের জন্যে পল্লী

* মঙ্গল সমিতি” গঠন করেছেন; স্বতরাং আপনারই বন্ং

গ্রামের প্রতি সত্যিকারের টান আছে।

কমল। মালতী দেবী,বদি আপনি দ্রেশের বর্তমান অবস্থার কথা৷ একবার ভাবেন, তা হ'লে আপনিও বেশ বুঝতে পারবেন, দীর্ঘদিন পরাধীনতার নাগপাঁশে আমাদের মেরুদণ্ড ভেঙ্গে গেছে কত অবিচার, কত অত্যাচারের কষাঘাত আমাদের সহা করতে হয়েছে এখনও হচ্ছে আজ আমর! শত সহত্র বাধা বিপত্তি ঠেলে স্বাধীনতার প্রথম সোপানে পা বাড়িয়েছি। আমাদের আকাশ আজ আর অন্ধকাঁরে আবৃত নয়; তার মধ্যে উষার আলোর সন্ধান পেয়েছি। তাঁই আজ আমাদের চুপ করে বসে থাকলে চলবে না। যারা দেশের আসল মানুষ, যারা -পরাধীনতার

[ ৩১]

সর্বহারার দাবী

তিক্ত আন্বাদ মধ্মে মন্মে উপলব্ধি ক'রতে পেরেও মাথা তুলতে পারেনি, ভাদের জাগাতে হবে। লুপ্ত স্মৃতি আবার তাদের চোখের সম্মুখে নৃতন করে ধরতে হবে। নুতন আলোকে নৃতন পথের সন্ধান দিতে হবে।

মা্গতী। আপনার এই আদর্শের কাছে আমি মাথা নত করছি। তর্ক করে বড় হবার ইচ্ছা আর আমার নেই। আপনি আমায় ক্ষমা করুন।

কমল। মালতী দেবী, আপনি যে এত ছুর্বল তা আমি জানতাম না

মালতী না কমলবাবু, আমি বুঝতে পাচ্ছি আমি ভুল পথে

_ চলেছি। চলতে গিয়ে যদি পথিক পথ হারিয়ে ফেলে, তাকে সোজ! পথে নিয়ে যাবার অধিকার প্রত্যেকেরই আছে।

কমল আপনি আমাদের পাশে দাড়াবেন ?

মালতী ক্ষতি কি।

কমল। কিন্তু এপথ যে সহজ সরল নয়। এতে যে কত লাঞ্ছনা, গঞ্জন/ সহা করতে হবে--না, আপনি তা সহ করতে পারবেন না |

মালতী দেশের কাজ করব আমি। এতে কার কি বলবার থাকতে পারে, তা ত' আমি ভেবেই পাচ্ছি না কমল বাবু।

[৮২4

সর্লহারার দাবী

কমল যাদের নিয়ে সংগ্রামের পথে মামব, তাদের অনেকেই যে এখন অন্ধকারের মধ্যে পডে আছে। তাই তারা আমাদের ভুল বুঝবে

মালতী। না, ধারণা আপনার অমূলক

কমল। আমি যেতুক্তভোগী মালতী দেবী একদিন আপনার মত আমারও এদের ওপর সরল বিশ্বাস ছিল

মালতী সেবিশ্বাস হারালেন কিসে?

কমল। কাজে নেমে; লাপনি যাকে সামান্য মনে করেছেন, সেই পথেই নামতে গিয়ে কত কি যে বাধা বিপত্তির সম্মুখীন হাতে হয়েছে, তা যদ আপনি শোনেন আশ্চধ্য হ'য়ে যাবেন।

মালতী বলুন কমলবাবু-_

কমল | বছর কয়েক আগে. আমি যখন এই গ্রামে এলাম, দেখলাম সব পুকুরেই কমবেশী পানা জমে রয়েছে। ছু একট! পুকুরে সেই সব পানা পচতে সুরু হয়েছে গ্রামের রাস্ত'ঘাট গুলো দেখে আমি আরও আশ্চর্য হ'য়ে গেলাম। কোথ।ও বা. এক হাত উঁচু, আবার কোথাও বা ছু' হাত নীচু। এরই উপর দিয়ে দিনের পর দিন মানুষ কি ভাবে যাতায়াত করছে, তা ভাবতেও আমার কষ্ট হ'ল। জন- কয়েক লোকের মুখে শুনলাম প্রায় প্রতি বৎসরই দ্ধায় তু'একজন হাত-পা ভেঙ্গে মরে

] [৩৩]

সর্বহারার দাবী

মালতী কি আশ্চর্য্য-_ তবুও দিকে কারুর লক্ষ্য নেই।

কমল। তারপর এর একট। প্রতিকার করবার জন্য সমাজের শীর্ষস্থান যারা অধিকার ক'রে বসে আছেন, তাদের কাছে প্রথম অনুরোধ করি। অবজ্ঞার হানি হেসে যখন তারা আমায় বিদায় দিলেন, তখন সমাজ যাদের অভদ্র কলে এক পাশে ঠেলে রেখেছে তাদের মাঝেই আমি আমার আঙলন পাতলাম। তারা আমায় বন্ধু বলে স্বীকার করল; কাজ নুরু ক'রে দিলাম ।...তারপর চারিদিক থেকে শুধু এই কথাই কাঁণে আনতে লাগল--আমাদের কাজ ছোট লোকের কাজ সহকন্মীরা চঞ্চল হয়ে উঠল! আমি তখন তাদের শুধু এই কথাটাই জানিয়ে দিলাম যে আমাদের কাজ ছোটলোকের কাজ হ'তে পারে) কিন্তু ছোট কাজ নয়। যারা লোকের ভাল করবে না, আর একজন ভাল করছে দেখলে ছোবল মারবার লোভও সামলাতে পারবে না

[ রমা ঘরের মধ্যে প্রবেশ করিতেই কমল হঠাৎ চুপ করিয়া গেল। (রমার পরিধানে একটা কালাপাড় সাদা ধুতি বয়স একুশের কাছাকাছি ]

রমা | ( কমলকে লক্ষা করিয়!) কখন এলেন? কমল এই খানিকটা! আগে।

[৩৪]

সর্বহারার দাশী

রম1। মালতীর কাছে কি লেকচার দিচ্ছিলেন 1

কমল আমাদের “সমিতির কথা বলছিলাম

রমা। আপনি বোধ হয় জানেন না, মালতী আমাদের এই 'সমিতি'কে ম্বনজরে দেখে না।

কমল তা হয়ত হবে।

রমা। কেন বলুন

কমল বোধ হয় নারী জাগরণের যে ব্রত গ্রহণ করেছেন, তার অগ্রগতির পথে গামাদের 'সমিতি' প্রতিবন্ধক--এই ভেবি।

মালতী কে বলেছে আপনাকে এসব কথা যেখানে যাই সেখানেই শুনতে পাই, নারী-জাগরণের পাণ্ডা আমি। কেন লেখাপড়া শিখে কি আমি চোর দায়ে ধরা পড়েছি। চারি পাশ থেকে আমার বিরুদ্ধে এট সব অভিযোগের কারণ কি? আপনারা আমায় এক পাশে ঠেলে রাখতে চান; ভাবেন, দেশের কাজ করবার অধিকার শুধু আপনাঁদেরই আছে!

[ ক্রুত প্রস্থান]

কমল মালতীর অনেক পরিবর্তন হ'য়েছে দেখছি রম1। ওটা বাইরের পরিবর্তন--ভেতরকার নয় কমলবাবু। কমল | তা হবে।

[ ৩৫1

সর্বহারার দ্বাবী

[ পবন, উপেন, রবি যতীন-এর গ্রবেশ | ভাহ!দের প্রত্যেকেই বিষঞ্প দেখাইতেছিল ]

পবন বাবু আমাদের বাঁচান।

উপেন মা আমাদের রক্ষা করুন

কমল কেন কি হয়েছে তোমাদের?

রবি। আমাদের সর্বনাশ হ'য়েছে বাবু

যতীন। দেশের লোক আমাদের দিয়ে ?আর কোন কাজ করাবে না।

পবন। তাহ'লে আমরা কেমন করে বাঁচব।

রমা আমি জানতাম রকম একটা কিছু ঘটবেই-_

উপেন। আমবা আর এখানে থাকব না, সহরে চলে যাব।

কমল। এতটুকু বিপদ দেখেই, তোমর। তোমাদের ধেধ্য হারিয়ে ফেলেছ

পবগ। পেটে মারলে কে আর চুপ করে থাকবে বাবু

কমল। তোমাদের কোন ভয় নেই--আমি তোমাদের সব ব্যবস্থাই আগে থেকে ঠিক ক'রে রেখেছি তোমাদের বাহায্যে আমি বাংলার অদ্ধমৃত্ত কুটীর-শিল্পকে আবার নৃতন করে প্রাণ দেব। এই যন্তরযুগে-_যন্ত্রশিল্পের সঙ্গে সমানে পা ফেলে, অনেক কুটার-শিল্প এখনে মাথ! উচু ক'রে দাঁড়িয়ে আছে। আমাদের এই নিজস্ব সম্পদ, আজ অনাদয়ে অবচ্েলায় নষ্ট হ'তে চলেছে বাংলার প্রতি ঘরে ঘরে

[৬]

সর্ধহহারার দাবী

আমর। আজও হাজার হাজার শিল্পীকে খুঁজে পাব; কিন্তু তাদের পথ দেখিয়ে নিয়ে যাবাগ লোক নেই বলেই; তারা আজ পঙ্গু হ'য়ে বসে আছে ভাই সব, তোমরা আমায় বিশ্বাস কর, আমি আঙজজ থেকে এই কাঞ্জের ভার নেব। তোমাদের সহরের বড় বড় মিল আর ফাক্লুরীতে কাজ করতে যেতে হবে না তোমাদের মত শিল্পীকে দালত্বের শৃঙ্খলে বন্দী হ'তে দেব না।

উপেন। দেশে থেকে যদি আমর! খেতে পরতে পাই, তাহ'লে কোথাও যার না বাবু

কমল; তোমাদের বাপ ঠাকুরদা নিজের নিজের জাত ব্যবসা করে সুখে জীবন কাটিয়ে গেছে , আর আজ তোমাদের এক মুঠে। ভাতের জন্য গোলামের খাতায় নাম লেখাতে যেতে হবে না। আমি কাল থেকেই তোমাদের নিয়ে কাজ সুর করব। তোমরা এখন যাও

[ রমা কমল ভিন মকলের প্রস্থান]

[ বাড়ীর ভিতর হুইতে ব্যস্তঙাবে রাসবিহারী বাধুর প্রবেশ ]

রাসবিহারী। খোকা-_-খোকা ফিরে এসেছিস?

রমা জ্যাঠামশায় !

রাসবিহারী। খোকা কই? তার কগ্ম্বর যেন আমার স্পষ্ট . কাণে এল। (রমাকে নিকুতর দেখিয়া ) চুপ করে রইলে

[৬]

সর্বহারার নবী

কেন? তবে কি খোকা আসেনি 1...না, সে আর ফিরে. আসবে ন।। কত দিন আমি তাকে দেখি না, তবুও তার সেই মুখখান! সব্ধদাই যেন আমার চোখের লামনে ভামছে। স্বপ্নে তার মুখখ।ন। মনে পড়ে যায়। খোকা-- “খোকা? ব'লে চীৎকার ক'রে উঠি, ঘুম ভেঙে যায়; বিছানার চারিদিক হাতড়াতে থাকি, তাকে খুঁজে পাই ন1। কমল, তোমায় দেখে যেন আমার বরাবরই কেমন একটা সন্দেহ জাগছে। বল, কি উদ্দেশ্য নিয়ে তুমি এখানে এসেছ ? কমল। মানুষ কি ভাবে মানুষের মত বাঁচবে এই উদ্দেখ্ে। রারবিহারী চলতে গিয়ে পথভ্রষ্ট হ'য়ে যে পথিক অন্ধকারের -মধ্যে পথ হাতড়াতে থাকে, তাকে উদ্ধার করতে পার? কমল। নেশার ঘোরে যে নাবিক হাল ছেড়ে দিয়ে, নিশ্চিন্ত আরামে সমুদ্রের বুকে ভেপে বেড়ায়, তাকে তীরে ডেকে আনার চেষ্টা €থা ; যহক্ষণ না তার নেশ। কাটে রাসবিহারী তুমি মূখ? অপদার্থ রম।। জ্যাঠামশায়-_| রাসবিহারী। জমিদার রাসবিহারী মুখোপাধ্যায় দিনকে রাত করতে পারে, আর সামান্য একট। মানুষকে পৃথিবীর মধ্য থেকে খুঁজে বের করতে পারবে না এতদিন পরের ওপর নির্ভর“ক'রে মহাতুল করেছি 0

[৬৮]

সর্বহারার দাবা

কমল। আপনি ধের্য্যের প্রতীক। উত্তেজিত হওয়া আপনার পক্ষে অশোভনীয়। আপনা ডাক একদিন তার 'কাণে পৌঁছাবেই__পৌছাবে। তখন দে আর নিজেকে দুরে সরিয়ে রাখতে পারবে না

রাসবিহারী। আর কত দিন আশায় বুক বেঁধে রাখব? হ্থ্যাঃ শোন জ্যোতি-_

কমল। এ)! কি বলছেন আপনি?

রাসবিহারী। ওঃ আমরাই ভুল হ'য়ে গেছে; কিন্তু কি আশ্চর্য, তোমার মুখ দেখলেই আমার জ্যোতির মুখখান! মনে পড়ে যায়।

রম)। জ্যোতি কে জ্যাঠামশায় ?

রামবিহারী। তুমি তাকে চিনবে না মা। জ্যোতির বাবা আর আমি একই সঙ্গে পড়াশুনা, খেলাধূলোর মধ্য দিয়ে মানুষ হয়েছিলাম | ছোটবেলায় আমাদের বন্ধুত্ব অপরের ঈর্ধার বিষয় হ'চয় দাড়িয়েছিল। তারপর কণ্মক্ষেত্রে প্রবেশ করে ছু'জনে প্রথম পৃথক হলাম আমি রয়ে গেলাম এইখানে, আর সে চলে গেল বিদেশে সরকারী চাকুরী নিয়ে। তার পর আমাদের মুখের কথা খুটে উঠল, চিঠির আদান প্রদানের মধ্য দিয়ে। এক যুগ পরে তার সঙ্গে আমার দেখ হয়েছিল; তখন তোমার বয়স খুবই অল্প মা।

(৩৯ ]

সর্কহারার দাবী

তোমায় দেখে পুত্রবধূ ক'রে ঘরে রাখতে আমার কাছে গুরাণ' বন্ধুর দাবী