রায়গুণাকর ভারতচন্দে

লাবিব শা-াল্থ 2

রায়গুণাকর ভারতচন্দ্র

শ্রীমদনমোহন গোদ্বামণ

এমৃ-এ (বাঙ্গালা এবং দর্শন ), ভি-ফিল (সাহত্য ), অধ্যাপক £ আশুতোষ কলেজ, কাঁলকাতা প্রাক্তন অধ্যাপক £ উলুবোঁড়য়া মহাবিদ্যালয়, হাওড়া

প্রণীত

আচার্য শ্রীষূক্ত সুনশীতকূমার চট্রোপাধ্যায় কর্তৃক 'লাখত '্রস্তাবনা সম্বলিত

লা1 1 পেগা পাবলিকেশন বিভাগ ১৬১৯-১৬০, কর্ণওয়ালিস স্ট্রীট, কাঁলকাতা

১১৯৫৫ খহীজ্টাব্দ

টডি-ফিল- উপাধির জন্য প্রদত্ত, ডাঃ সুশশীলকুমার দে ডাঃ সঃকুমার সেন ভাঃ মহম্মদ শহাদাল্লাহ্‌ কর্তৃক পরশক্ষিত অন্মোদিত এবং কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক পরিগৃহশত (রেজিস্ধারের পন্ত নং বিবিধ ১০১০-১০১৩/ ভি-ফিল্‌ তাঃ ২৭-২৮191১৯৫৫ খুখঃ) গবেষণাগ্রল্থ

॥গ্রন্থকর্ত কর্তৃক সব্বাঁবধ স্বত্ব সংরক্ষিত॥ প্রথম সংস্করণ ১৩৬২ বঙ্গাব্দ-১১৯৫৫ খহীম্টাব্দ

মূল্য বার টাকা

মুদ্রাকর প্রকাশক শ্রীশ্যামলকুমার মর নালন্দা প্রেস ১৬৯-১৬০, কর্ণওয়ালিস স্মীট, কলিকাতা ৬1

॥যাঁহাঁদগের সুমহান আদর্শ এবং সুপাঁবনত্র জীবনধারা গ্রল্থকারকে সারস্বত-সাধনায় একান্ত ব্রত কাঁরয়াছে সেই পূজ্যপাদ অধ্যাপক শ্রীধক্ত অ..5552:10 বন্দ্যোপাধ্যায় সব্্বংসহা মা-মাঁণ শ্রীমতশ ইন্দযমতশ দেব এই গ্রন্থ শ্রদ্ধার সাহত 'নবোদত হইল

সূচীপত্র |

॥ড়ামকা। [পে 0৬০-১৭১ 11 ্স্তাবনা-_ মৃখবন্ধ।

1১॥ বিষয়-প্রবেশ [প্‌ঃ ১-৬] উপরুমণিকা-স্র্তিদশ শতক সমন্ঘয়ের যুগ--ভারতচন্দ্ের রচনায় জাঁবনরষ- বিদ্যাসম্দর কাব্যের অপখ্যাতি--কাঁবির রচনাবলীর সহজপ্রাপ্যতা জনীপ্রয়তা।

॥২॥ ভারতচন্দের নামে প্রচালত রচনাবলী [পৃঃ ৭-১১]।

সত্যপশরের কথা-রসম্জরী-_অন্নদামঙ্গল কাব্য (তিন খণ্ড )--বাবধ-বিষা়ণণ কাবতাবলী-_পন্ন- নাগাত্টক--চণ্ডীনাটক--পঙ্গাষ্টক-খল ভারতচন্দ্র।

॥৩॥ কবি-জাঁবনী | পৃঃ ১২-২৭]। কাঁবর জন্মভূমি--ডুরসূট পাল্ডুয়ার পূর্ব আধুনিক পাঁরচয়-ভুরসূট রাজবংশ ভারতচন্দ্র--বংশলতা, মাকিম পাণ্ডুয়া-_ভারতচন্দ্রের জন্মাব্দ-_জীবনব্ত-পাঁরবার- বর্গের পাঁরচয়-_পান্ডুয়া গড়ুভবানীপুরে রাজবংশের স্মৃতি--কবির স্মৃতিরক্ষা।

॥৪॥ মহারাজ কৃষচন্দ্র কৃষ্ণনগর রাজলভা [পঃ ২৮-৪৫]। অষ্টাদশ শতকের কৃাঁষ্টকেন্দ্র কৃফনগর-রাজবংশের ইতিহাস--কৃনগরের ভৌগোলিক

অবস্থান--রাজবংশলতা--সহারাজ কৃষ্ণন্দ্র-_রাজপাঁরবার পোষ্যবর্গ--রাজসভা-বাবিধ িবরণী।

1৫) কাব-প্রাতিভা | পৃঃ ৪৬-৭৬ ||

সাহিতোর লক্ষণ-_সৃসলমান ষুগে বঙ্গসাহত্ের নবরুপ-বৈষব সাহত্য মঙ্গলকাব্য

--ভারতচন্দ্রের রচনার মৌিকতা-_অন্নদামঙ্গল কাব্যের বৌশষ্ট্য-কথাশিজ্প--লাপকর প্রমাদ পাঠাবকীত হেতু মূল পাঠোদ্ধারের দঃখসাধ্যতা-কাব্যাবচার-কাবির লোকোত্তর প্রভাব।

॥৬॥ বঙ্গভাষা সাহত্য এবং ভারতচন্দ্র | প্‌ঃ ৭৭-৮৬ 11 বঙ্গ সাহিত্যের গাঁত-প্রককাত--আর্যাগণের সাহত্য-সাধনা__কাঁব জয়দেব বন্গ-সাহতয - স্পথণীম্টীয় দশম-দ্বাদশ শতক হইতে ভারতচন্দ্রের পূর্ব্ব পর্যন্ত বঙ্গভাষা সাহতোর সংক্ষিপ্ত পরিচয়--অষ্টাদশ শতকের সাহতাধারা ভারতচন্দ্ু-যুগর্সান্ধর কাব ভারতচন্দ্র--ভারতচন্দ্রের উত্তরাধিকার।

8০ ) রায়গুণাকর ভারভনন্দ্

৭1 714.5775 এবং চৌরগঞ্ডাশং কাব্য [পৃঃ ৮৭-১৩৬]। বাঙ্গালা ভীষায় বিদ্যাসুন্দর কাব্য-_সংস্কৃত ভাষায় বিদ্যাসন্দরাঁদি কাব্য চৌরপণ্ঠাশং কাব্য-বিদ্যাস্ন্দর কাহিনশর ক্রমবিকাশ ভারতচন্দ্র-বাঙ্গালা ভাষায় অনূদিত চৌর- পণ্ঠাশিকা ভারতচন্দ্র।

॥৮॥ রসমঞ্জরণী ভারতচন্দ্র | পৃঃ ১৩৭-৬৩|। রচনাকাল নির্ণয়-রচনার আদর্শ-_ভারতচন্দ্রু ভানুদত্ত--তালিকাসহ বিষয়বন্ধ বিশ্লেষণ-নায়িকা-প্রকরণ, নায়িকাসহায়, নায়ক-প্রকরণ, নায়কসহায়, শঙ্গার-নির্পণ, ভান্প্রকরণ, বয়োবিভাগ ভ্রাঁতিকথন-_ভারতচন্দ্রের রসমঞ্জরীর বৈশিষ্ট্য।

0৯ পীরমাহাত্্য কাব্য ভারতচন্দ্রা পৃঃ ১৯৬৪-৭২]। সূচনা--কাহিনী-বিশ্লেষণ স্কন্দপ্রাণ--বাবিধ পাঁচালীতে কাহিনীর পার্থক্য ভারতচন্দ্রের 'সত্যপণীরের কথা" কাব্যবিচার-_সত্যদেবতার জনপ্রিয়তা পূজায় বঙ্গদেশের প্রভাব।

7১০ মঙ্গলকাব্যে ভারতচন্দ্র | পৃঃ ১৭৩-৯১|। | প্রাক্‌ তুকাঁ তুকাঁ বিজয়োত্তর বাঙ্গালা সাহত্যের ধারা-_সঙ্গলকাব্য_এঙ্গল-কাঁব ভার্তচন্দ্র-জয়দেব, সদুক্তিকর্পামৃত, উ্দরাম, ঘনরাম ভারতচন্দ্র-মঙ্গলকাব্য- 'বিরচনে ভারতচন্দ্রের সার্থকতা

0১১ অনদামঙ্গলের সঙ্গীত | পৃঃ ১৯২-৯৭ || প্রাচীন বঙ্গসাহিত্যে সঙ্গীত- মার্থসঙ্গীত- ভারতীয় সঙ্গীতে ঈরান প্রভাব--বঙ্গ- রি নিজস্ব সঙ্গীত মার্গসঙ্গীতের সাহত যোগাযোগ বিষুপুর মার্গসঙ্গীত- অন্নদামঙ্জলের সঙ্গীত-শিল্প।

১২] সক্ত-মক্তাবলী | পৃঃ ১৯৮-২২২1। প্রবাদ-সৃভাষিতের বাস্তব-নিঘ্ঠাঁলোৌকিক সাহিত্য প্রবাদ--ভারতচন্দের সৃভাষিতা- বলীর বর্ণানুক্রুমক তালিকা।

॥১৩)/ ভারতচন্দ্রের কাব্যে দার্শনিক পটভুমিকা | পৃঃ ২২৩-৩৫]। ভারতীয় দর্শন সাহিতা-_-অন্নদামঙ্গলাদ কাব্যে দার্শীনক উপাদান--কাব্প্রদর্শনী-_ অন্নদামঙ্গলের রূপক ব্যাথ্যা--ভারতচন্দ্রে ধর্ম্ম।

চি 1১৪ ভারতচন্দ্বের কাব্যে এসলামিক রহস্যবাদ | পৃঃ ২৩৬৪২ 17, সূফীবাদ ভারতীয় ভাবধারা--সাহত্যে সূফাঁবাদ--ভারতচন্দ্রু সূফীবাদ--কাব্য- প্রদর্শন)

১৫॥ ভারতচন্দয় কাব্যে পৌরাণিক পটভুমিকা [পৃঃ ২৪৩-৭৭ ]1 |

'হন্দুসভ্যতার 'বাবধ উপাদান--সাহত্যে শিব শক্তিদেবতা- সঙ্গলকাব্যর আঁষষ্ঠারী দেবতা-_ভারতচন্দরের রচনায় তবাবধ পঢরাণ, লৌকিক কাব্য ইত্যাদির উপাদান বিস্লেষদ 'বিচার।

॥১৬॥ কৃষচন্দ্র-ভবানন্দের কাহিনশর এীতিহাদিকতা | পৃঃ ২৭৮-৯২]। মুসলমান রাজত্বের এঁতিহাসির বিবরণ কৃষণচন্দ্রের জীবনবৃত্ত-ভবানল্দ মজন্দার প্রতাপাঁদত্যের কাহিনী--কাহিনশর সত্যতা-বিচার।

৯৭/ভারতচন্দের লোকপ্রিয়তা [পৃঃ ২৯৩-৩২৪ | বাঁবধ গ্রন্থে ভারতচন্দ্রের উদ্ধাতি অনুবাদ-_রচনার জনাপ্রয়তা উত্তর কালের সাহত্যসাধকবৃন্দের উপর প্রভাব-_কাঁব-প্রশান্ত--নাটগশীতি ভারতচন্দ্র--সাহত্যের নবষূগ জনগণের রুচি-পাঁরবর্তন--ভারতচন্দ্রের প্রভাব পাঁরণাঁত।

॥১৮) ভাপতচন্দ্র গলায় এবং আলেকজাগ্ডার পোপ | পুঃ ৩২৫-৩৮]।

যুরোপীয় সাহত্য পোপ-পোপ ভারতচন্দ্রের সাদশ্য--কাব্যপ্রদর্শনী--ভারতচন্দু সাহিত্যের সংস্কার-মনৃক্তি।

১৯ /্গিচত্রাশল্পী ভারতচন্দ্র [পৃঃ ৩৩৯-৭৩ ]। ভারতচন্দ্রের কাব্যের রসাত্মকতা বাস্তবতা-নবদ্বীপ-কৃষ্ণনগরের কৃণ্টিকেন্দ্র- গোড়বঙ্গের পারচয়-_রাজ্য শাসন ব্যবস্থা--ব্যবসা-বাণিজ্য--দেশ-বিদেশ-_বাদাষল্ল, যৃদ্ধাস্্ যানবাহন- রূপসজ্জা স্াপত্যশিল্প--পূজাপার্্বণ_বাবধ সামাজিক বাঁধ, প্রথা সংস্কার- জাতি, পদবী নাম-_ ভোজ্য পানায়-_কৃষ্টিকেন্দ্র স্থানাস্তর।

৫২০1। ভারতচন্দ্ের ভাষা | পৃঃ ৩৭৪-৯৯|।

ভূমিকা-ধ্বানিতত্ব_ রুপতত্ব--বাক্যরশীতি- শব্দভান্ডার--ভুরসুটে মুসলমান সংস্কৃতির কেন্দ্র ভারতচন্দ্রের উপর তাহার প্রভাব।

৮/২১ ছন্দ অলঙ্কার [পৃঃ ৩৯২-৪১৯৩ |1 ছন্দ--প্রাক ভারতচন্দ্র বুগের ছন্দ, ভারতচন্দ্রের ছন্দোবৈশিষ্ট্য, রচনায় 'বাবধ ছন্দের ব্যবহার স্তবক-পদ্ধাত। অলমঙ্কার--সাঁহতো অলঙকার-প্রয়োগের প্রয়োজনশম়তা, ভারতচন্দ্রের রচনায় অলঙ্কারের 'নদর্শন সার্থকতা

২২ /জবনাল পাশ্চমা হহিন্দীর উপাদান | পঃ ৪১৪-১৮]। অপভ্রংশ সাহিত্য--ব্লজবৃলি--ভারতচন্দ্রের রচনায় ব্রজবূলি লক্ষণাক্রান্ত পদাবল+- কাব্যে পশ্চিমা 'হিন্দীর' উপাদান দষ্টান্ত।

1০ '্লায়গণাকর ভারতচচ্দ & ২৩ 0/্ারবী-ফারস+-তুকাঁ শন্দভাগ্ডার [প:ং ৪১৯-৩৬]।

বাঙ্গালা ভাষায়” বিবিধ ভাষা শব্দাবলস-_-অন্টাদশশ শতকের সাহিত্যের শব্দভাণ্ডায-- ভারতচন্দ্রের কাঁব্যে ব্যবহৃত বিদেশী শব্দাবলীর বর্ণানূক্লামক সার্থক তালিকা।

8২৪॥ শব্দাথচদ্দিকা [পৃঃ ৪৩৭-৫৬]। অপ্রচলিত 'বাঁশল্টার্থক শব্দাবলণর বর্ণানুক্রমিক সার্থক তালিকা, টকা টিপ্পনী।

॥২৫॥ খিল ভারতচন্দ্র [প্‌ঃ ৪৫৭*৫১১]।' ভারতচন্দ্রের পঠথ মযাদ্রত গ্রল্থের তাঁলিকা--বাভন্ন প:থিতে রচনার হুচ্বাধিকোর নমুূন্যম-ভারতচন্দ্রের নামে প্রচলিত আতীরক্ত রচনাবলণ।

॥২৬ ভারতচন্দ্রের অন্যবাদ | পৃঃ ৫১২-২৪]। লিপিকর-প্রমাদ হেতু মূল পাঠ নিদ্ধারণে অস্বিধা--সংশোধিত মূল রচনা সমেত ভারতচন্দ্ের কাব্যানূবাদ।

7২৭ চিত্র পরিচয় [পৃঃ ৫২৫-৩৪ | বাবধ পুথি হ্থানসমূহের বিস্তৃত পরিচয়--সংখ্যান্মক্রামক চিন্নমালা।

ভূমিকা

প্রস্তাবনা

প্রদুত প্ন্তক, অধ্যাপক শ্রীযুক্ত মদনমোহন গোস্বামীর রায়গ;ণাকর ভারতচন্দ্, নানা দিক হইতে বিচার. করিলে বাঙ্গালা ভাষার একখান আত লক্ষণীয় এবং প্রামাণিক পযুস্তক হইয়াছে, এবং এই ধরণের পনন্তক রাঙ্ালায় প্রথম রচিত প্রকাশিত হইল। বঙ্গভাষা বঙ্গসাহিত্যের অনুরাগ কলেই এই অনুপম গ্রল্থকে সাগ্রহ আভনন্দনের সাঁহত গ্রহণ কাঁরবেন।

বাঙ্গালা সাহত্যের ধারা তাহার প্রথম আত্মপ্রকটের সময় হইতে প্রায় সহম্্র বৎসর ধরিয়া অবাধ গতিতে প্রবাহিত রাহয়াছে- আধুনিক ভারতীয় সাঁহত্যের ভান্ডারে বাঙ্গালা ভাষার দান অন্য কোনও আধুনিক ভারতীয় ভাষার দানের তুলনায় নগণ্য বা দীন নহে। বাঙ্গালা সাহিত্যের উদ্ভবের প্রথ্ যুগেই বহু কবি ইহার সেবা আরম্ভ করিয়া দেন। ১১২৭-শকান্দ-[-খীম্টীয় ১২০৫ সাল]-এ পশ্চিম বঙ্গের শেষ হিন্দু রাজা লক্ষমণসেন দেবের সভার, অমাতা, 'প্রাতরাজ' শ্রীধরদাস 'দক্তকর্ণামৃত' নামে এক বৃহৎ অপূর্ব সংস্কৃত কাঁবতার সংগ্রহ সঙ্কলন করেন, তাহাতে তিনি কেবল 'বঙ্গাল কবি' এই নামে উল্লীখত কোনও পূবিঙ্গবাসী বঙ্গভাষী কবি কর্তৃক সংস্কৃত ভাষায় আর্যা ছন্দে রচিত একটপ ক্লক উদ্ধার করিয়া দেন। এই ্লোক হইতে আমরা জানতে পার যে, এখন হইতে প্রায় ৭৫০ বৎসর পূর্বে বঙ্গভাষী কবি তাঁহার মাতৃভাষার গুণ গৌরব এবং .তাহাতে নানা কবি কর্তৃক সাহত্যস্জনা সম্বন্ধে অবাহিত ইয়াছেন তংসম্ন্ধে প্রশান্ত কারতেছেন। গ্লোকটধ এই--

ঘনরসময়ণ গভীরা বাকিমসূভগোপজবিতা কাঁবাভিঃ। অবগাড়া প্নীতে গঙ্গা বঙ্গালবাণী চ॥ --সদুক্তিকর্ণামত [৫1৩১।২]

অর্থাৎ গঙ্গা বাঙ্গালা ভাষা, এই দুইটীতে অবগাহন করিলে মানুষকে পার করে। গঙ্গা প্রচুর জলযুক্ত, বঙ্গভাষা নবরসের প্রচুর সমাবেশে বিদ্যমান; গঙ্গা জল-গভার, বঙ্গভাষা ভাব-গভার; গঙ্গা বাঁঙ্কম গাঁতি হেতু সন্দর, বঙ্গভাষাও 'তদন্দরূপ বঙ্কিম বা বাঁকা অর্থাং সুন্দর এবং এম্বশালিনী; এবং উভয়ই

রায়গদ্ণপাকর ভারতচন্দু

নানা কাঁব কর্তৃক আশ্রত হইয়াছে, বঙ্গভাষার এই অজ্ঞাতপাঁরচয় প্রশীস্তকারের কিছু পূর্ব হইতেই বঙ্গসাহত্যের পত্তন হইয়াছিল। প্রথম যুগের কাবগণ বৌদ্ধ সহজিয়া মতের আধ্যাত্মক সাধনা লইয়া যে প্রহেলিকাপূর্ণ কবিতা বা গান রচনা করিতেন এবং তখনকার দিনের সামাঁজক জীবন লইয়া লোক- প্রচলিত দেবদেবীর স্তুতি লইয়া যে-সমস্ত গান বা পদ রচনা করিতেন, তাহার নদর্শন আমরা নেপাল হইতে মহামহোপাধ্যায় হরপ্রসাদ শাস্ত্রী কর্তৃক আঁবচ্কৃত চর্যাপদ" হইতে প্রাকৃতপৈঙ্গল' প্রভীতি কতকগুলি গ্রন্থ হইতে পাইয়াছি। এই যু্গর কবিদের, বিশেষ কাঁরয়া চর্যাপদের রচাঁয়তা বৌদ্ধ 'সদ্ধাচার্যগণের, নাম পাইয়াঁছ। তাঁহাদের অনেকের জীবন-কথার আভাসও পাইয়াছি; এগাাঁল অলৌকিক ঘটনায় পূর্ণ পৌরাণিক কাঁহনীর পর্যায়ের কথাবস্তু হইলেও, এীতহাঁসক ভিত্তির উপরে অবস্থিত বলিয়াই মনে হয়। এই চর্যাপদকার সিদ্ধাচার্য, যথা-_ মুহা, কান্হ, ভূসুকু, কুক্কুরী, শান্ত, বিরুবা, ভাদে, সরহ, বাঁজল, চাঁটল প্রভাতি ২২ জনের রচনা পাইতোঁছ, তাঁহাদের অলৌকিক জবন- কথাও 'কছু জানিতে পারিয়াছি; কিন্তু তাঁহাদের সম্বন্ধে আর কিছ জানিবার পথ আমাদের নাই।

চৈতন্যদেবের পূর্বের যুগে যে-কয়জন বড় বড় কাঁব বাঙ্গালা দেশকে ধন্য কাঁরয়া গিয়াছেন, তাঁহাদের সম্বন্ধেও বিশেষ কিছ জানবার উপায় নাই। তাঁহাদের রচনা বাঁলয়া পাঁরচিত কবিতা বা কাব্য কতটা সত্য-সত্য তাঁহাদেরই রচনা, কতটা-বা পরবতাঁ প্রক্ষেপক কাঁবদের কীর্তি তাহার 'নর্ধারণ করা এক আত জটিল ব্যাপার। বেহুলা-লক্ষনীন্ধর উপাখ্যান লইয়া প্রথম কাব্যকার কাণা হরিদত্ত নাম-মান্রেই পর্যবাঁসত হইয়াছেন: ময়্‌রভট্ট ধর্মমঙ্গল কাব্যের প্রথম রচয়িতা বলিয়া পাঁরিচিত; তাঁহার নাম জানা গিয়াছে, লেখা পাওয়া যায় নাই। শ্রীকফলীলা অবলম্বন করিয়া জয়দেবের সংস্কৃত 'গীতগোবন্দ'-র পরে যানি বঙ্গদেশে বিরাট কাব্য এবং পদ দেশভাষায় রচনা করেন, সেই প্রাচীন বাঙ্গালার অন্যতম শ্রেম্ঠ কাব চণ্ডাঁদাসকে লইয়া বঙ্গসাহত্যের ইতিহাসে এক জটিল এবং অনপনেয় বা দুরপনেয় সমস্যার উদ্ভব হইয়াছে। চণ্ডাঁদাসের বাসচ্থান.কোথায় ছিল- কীরভূমের নানুর বা নাদুড় গ্রামে, বা বাঁকড়ার ছাতনায় ? তাঁহার জীবৎকাল কোন্‌ সময়ের কথা-চৈতন্যদেবের পূর্বে হইলে কত পৰে

ভূমিকা | %/০ অথবা চৈতন্যদেবের সমসাময়িক ? রামী-ধোবানী-্ঘাটিত যে চিত্তাকর্ষক রমন্যাস সহজিয়া মতের সঙ্গে চণ্ডীদাস-কবির সাহত সংষ,ক্ত হইয়া আছে, তাহারই-বা এীতহাসিক মূল্য কি? এবং ইহাও নঃদন্দেহ যে, একাধিক চণ্ডাদাসের রচনা--অনস্ত বড় চণ্ডীদাস', পদ্জ চণন্ডীদাস' এবং “দীন চণ্ডবদাস', অন্ততঃ এই তিন জনের রচনা-একসঙ্গে মাঁলয়া গিয়া এই তন জন (অথবা 'তিন জনের আঁধিক) কবির রচনায় তালগোল পাকাইয়া এক মিলিত চণ্ডীদাসের সূম্টি করিয়াছে; এই মিশ্রণের বিশ্লেষণ কাঁরিয়া, প্রত্যেক চণ্ডীদাসের পৃথক: *ত্তাকে প্রাতাষ্ঠিত করা দুঃসাধ্য ব্যাপার বাঙ্গালা ভাষায় সম্ভবতঃ ধান প্রথম রামায়ণ- কথা রচনা করেন, বাঙ্গালার সেই অন্যতম আদ কাঁব কীত্তবাস ওঝার নিজের লেখা বলিয়া পারাচত একটু আত্মপরিচয় মান্র পাই, কিন্তু তাঁহার সন, তারিখ জীবনের কথা জানবার সামগ্রী আর কোথাও নাই। চৈতন্যদেবের সমসামায়ক বিজয়গ/প্ত বিপ্রদাস 'পাঁপিলাই, রামানন্দ রায় অন্য কাঁব সম্বন্ধেও সৈই কথা। বৃত্ত ভগবানের লীলাকথা-রূপে লাপবদ্ধ কাঁরয়া রাঁখয়াছেন; ইহা হইতে তাঁহার সম্বন্ধে কিছুটা তথ্য আমরা প্রাপ্ত হইতোছ বটে, কিন্তু অনেক কথা অলন্ধ রাঁহয়া

গিয়াছে, বিশেষ করিয়া তাঁহার 'তিরোধানের কথা।

চৈতন্যদেবের পরে শত শত কাব অন্য লেখক বাঙ্গালা সাহত্য বঙ্গীয় সংস্কৃতিকে সমৃদ্ধ করিয়া গেলেন, বৈষবচারতকারগণের প্রশংসন”য় চেষ্টার ফলে তাঁহাদের কাহারও কাহারও জাীবৎকথা কিছুটা আমরা জানিতে পারিতোঁছ মান্র। কবি মূকুন্দরাম চক্রবতর্শ কবিকঙুকণ তাঁহার চণ্ডীকাব্যের প্রারস্তে নিজের কথা কিছ উল্লেখ করিয়া 'িয়াছেন, রূপরাম তাঁহার ধর্মমঙ্গলেও আত্মপারচয় দিয়াছেন, কাশীরাম দাস নিজ মহাভারতের মধ্যে নিজের পাঁরবারিক পাঁরচয় রক্ষা করিয়া গিয়াছেন, আলাওল চট্টগ্রামের অন্য কাঁবগণও হজেদের নিজেদের পৃজ্ঞপোষকদের কথা িছ:টা লাঁপবদ্ধ করিয়াছেন। প্রাচীন বাঙ্গালা সাহিত্যের ইীতহাসে এইরূপ টুকিটাকি খবর ছাড়া আর কিছুই সাধারণতঃ পাওয়া যায় না। অধ্যাপক শ্রীষূক্ত সুকূমার সেন নানা পযস্তকের মধ্য হইতে উপাদান সংগ্রহ করিয়া বাঙ্গালার অন্যতম বৈষব- কাঁৰ পদকার গোবিন্দদাসের সাহিত্যিক জীবনের কিছ; পাঁরচয় দিতে সমর্থ

4% রর রায়গুণাকর ভারতচন্দ্

হইয়াছেন-_পনুরাতন বাঙ্গালা সাঁহত্যের কথায় এইরূপ তথ্য পাওয়া যথা- রীতি প্রকাশ করা দুর্লভ ব্যাপার। মাল-মশলার অভাবে, প্রামাণিক তথ্যের অভাবে, প্রাচীন বাঙ্গালা সাহত্যের কথা, কাঁবদের কথা, একদিকে যেমন অপরর্ণ খাণ্ডত রাঁহয়া গিয়াছে, অন্যাদকে তেমান প্রামািক সংস্করণের অভাবে লেখকদের রচমারও প্রকৃষ্ট বিচার-বশ্লেষণ সম্ভবপর নহে।

ইংরেজদের এদেশে প্রাতাচ্ঠত হইবার পূর্বে যত বাঙ্গালী কাব লেখক প্রাদ্দভূত হইয়াছেন, তাঁহাদের মধ্যে ভারতচন্দ্র রায়গুণাকর অন্যতম সবশেষ কাঁব। কাল-সান্লিধ্যের কারণে, এবং তান প্রথম হইতেই বঙ্গভাষীদের মধ্যে হইতে পারে নাই; এবং তাঁহার তিরোধানের শতবর্ষ মধ্যে, ১২৬২ সালে [-১৮৫% খন্টাব্দে] কাব ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত নানা অনুসন্ধান কাঁরয়া তাঁহার একখানি জীবনী 'িখেন। নিজের ব্যক্তিগত জীবন সম্বন্ধে পৃন্ঠপোষক নবদ্ববপ-রাজের তথা অন্য সম্পৃক্ত বাক্তর সম্বন্ধে কাব যে-সকল কথা বলিয়া িয়াছেন, তাহা, এবং গৃপ্তকবি রচিত এই জাঁবনচরিত- এই দুইটীই হইতেছে ভারতচন্দ্র-জীবন? সম্বন্ধে আমাদের মৃখ্য উপাদান বা আধার।

ভারতচন্দ্রের জীবনী ক্ীংক্ষেপে দুই কথায় সমাপ্ত করা যায়। কিন্ত ভারতচন্দ্র সাধারণ রচাঁয়তা বা কবিতাকার মাত্র ছিলেন না, তানি ছিলেন যুগন্ধর কবি। একটা সমগ্র যূগের রাজ্যের জনগণের ভাবধারা সংস্কৃতি তাঁহার বাণ'কৈ আশ্রয় কাঁরয়াই প্রকাশ পাইয়াছে। ইংরেজ-পূর্ব যুগে এইর্‌প যৃগন্ধর কবি বড় বেশী হয়েন নাই--ভারতচন্দ্রের সঙ্গে কেবল উল্লেখ কাঁরতে পারা যায় একমান্র কাঁবকঙ্কণ মূকুন্দরামকে। ব্যক্তিগত চাঁরন্রকে অতিক্রম করিয়া ভারত- চন্দ্রের যগন্ধরত্বের সম্বন্ধে সাবাহত না হইলে, ই'হার মত দেশ কালের 'প্লতীক- স্বরুপ মহাকবির সম্পূর্ণ বিচার করা সম্ভবপর নহে। শ্রীযুক্ত মদনমোহন গোস্বামী আলোচ্য প্স্তকে তাহাই কারবার প্রয়াস কারয়াছেন, এই জন্যই তাঁহার পুস্তকের মূল্য; এবং তাঁহার প্রয়াস সার্থক হইয়াছে বলিয়া আমি তাঁহাকে বঙ্গসাহত্যপ্রেমীদের পক্ষ হইতে অভিনন্দিত করিতোছি।

নাঁতবৃহৎ অক্ষরে মাদ্রত চিন্রসমেত এই ৫৩৪ পৃজ্ঠার পৃস্তকখানিকে' ভারতচন্দ্র-সম্পৃক্ত তাবং জ্ঞাতব্য তথ্যের একথানি সম্প্‌টে বলা যাইতে পারে। 4]

উচ্দ লল্ ষ্ঠ

ড় *

কেবল ইহাতে ৬ারতটন্দ্রে: রচনাবলঈ পূর্ণভাবে ম্পীদ্রুত, গ্রল্থান্তরে সম্পাদনা করিবার বাসনা রাখেন। কিন্তু ভারতচন্দ্রকে 'ও তাঁহার আঁধঙ্ঠানক্ষে কে সম্যগ্রূপে বুঝবার জন্য, ভারতচন্দ্রকে কেন্দ্র কাঁরয়া সমস্ত আলোচনা-যোগ্য বিষয়-চারান্রক, সাহাত্যিক, ভাষাসম্বন্ধীয়, রাজনীতিক, সামাজিক সাংস্কৃতিক-প্রন্থকার ইহাতে আলোচনা কাঁরয়াছেন। ইংরেজ- পূর্ব যুগের আর কোনও একজন বঙ্গীয় লেখকের সম্বন্ধে এরূপ সক্ষয পূর্ণ বিচারময় পযস্তক ইহার পূর্বে বাঁহর হয় নাই।

আলোচক অধ্যাপক শ্রীযুক্ত মদনমোহনের গ্রন্থের অধ্যায়সমূহের িষয়- বস্তুর ব্যাপকতা হইতেই প্রস্তুত পুস্তকের সর্বগ্রাহতা উপলান্ধ করা যাইরে--

॥১॥ ধবষয়-প্রবেশ; ভারতচন্দ্রের নামে প্রচালত রচনাবলী; ৩1 কাঁব- জীবনী; 1181 মহারাজ কৃষ্ণচন্দ্র কৃষ্ণনগর রাজসভা; | ৫॥ কাঁব-প্রাতভা; ॥৬॥ বঙ্গ- ভাষা সাহত্য এবং ভারতচন্দ্র; 1৭1 শবদ্যাসন্দর এবং চৌরপণ্ঠাশং কাব্য; ॥৮॥ রসমঞ্জরী ভারতচন্দ্র; ৯॥ পণরমাহাত্ম্য কাব্য ভারতচন্দ্র; ॥৯০ মঙ্গলকাব্যে ভারতচন্দ্রু; ॥।১১।। অন্নদামঙ্গলের সঙ্গীত: ॥১২॥ সূক্তি-মুক্তাবলী; ১৩ ভারতচন্দরের কাবো দার্শনিক পটভঁমকা;: 11১৪ ভারতচন্দ্রের কাব্যে এসলামিক রহস্যবাদ; ৯৫॥ ভারতচন্দ্রের কাব্যে পৌরাণিক পটভূঁমিকা; ॥॥১৬।| কৃষচন্দ্র-ভবানন্দের কাহিনীর এীতিহাসিকতা; ১৭ ভারতচন্দ্রের লোকাপ্রয়তা; 11১৮ ভারতচন্দ্র রায় এবং আলেক- জাণ্ডার পোপ; ১৯ যৃগচিন্রশিল্পী ভারতন্দ্র; ২০1 ভারতচন্দ্রের ভাষা ২১॥ ছন্দ অলঙ্কার; ২২॥ ব্রজবূলি পাশ্চমা হিন্দীর উপাদান; ২৩॥ আরবী-ফারসী-তুকাঁ শব্দভাগ্ডার: ২৪ শব্দার্থচীন্দ্রকা অপ্রচলিত বিশিষ্টার্থক শব্দসমূহের বিচার); 1২৫) খল ভারতচন্দ্র (ভারতচন্দ্রের পাঁথ মাদ্রুত সংস্করণসমূহ এবং পাঠান্তরাঁদর আলোচনা); ২৬ ভারতচন্দ্রের অনুবাদ (বাঙ্গালা তন্ন অন্য ভাষায় ভারতচন্দ্রের রচনার বাঙ্গালা কাব্যান্বাদ); এবং ২৭ চিন্র-পরিচয় (পঠাঁথ সম্পৃক্ত স্থানাদির চিত তাহার পরিচয়)।

উপরে প্রদত্ত অধ্যায়-সূচ+ হইতেই গ্রল্থখানির মহত প্রাণধান করা যাইবে। প্রত্যেক বিষয়েই গ্রন্থকার নূতন আলোকপাত কারয়াছেন। তাঁহার ব্যাখ্যার ফলে ভারতচন্দ্রের লেখক-মাহাত্ম্য যেমন সংপ্রাতষ্ঠিত হইয়াছে, তেমান ভারতচন্দ্রকে ব্যাঝতেও সহায়তা কাঁরয়াছে। এক-একটণ অধ্যায় ভারতচন্দ্রে ব্যাক্তত্ব তাঁহার সাহাত্যক প্রাতভার বিশেষ বিশেষ দিকের সম্পূর্ণ টীঁকা-স্বর্প। প্রবন্ধ লাখতে বাঁসবেন স্থির করেন। ভারতচন্দ্রের আন.যঙ্গিক সাহিত্য এবং অন্য বিষয়ের অধায়নের ফলে, ভারতচন্দ্র তাঁহার সমগ্র সাহত্য-শাক্ত ব্যাক্তত্ব

৯, রায়গ্ণাকর ভারতনন্দ্

লইয়া যেন তাঁহার উপর আধিম্ঠান কারলেন-কেবল ভাষাতত্তের কচকচি ভারত- চন্দ্র-মাহমার বেগবান্‌ ঘ্রোতে ভ্াঁসিয়া গেল। ভারতচন্দ্রের মূল পাঠ নির্ধারণের আকাকঙ্ক্ষাও তাঁহার মনে দেখা দিল। এই বিষয়ে, পারিস নগরণস্ছ শবব্রিওতেক নাসিওনাল' বা ফরাসী জাতীয় গ্রন্থাগারে রক্ষিত খম্টীয় ১৭৮৪ সালে অনু- গলাখত ভারতচন্দ্রের 'কাঁলিকামঙ্গল'-এর সংপ্রাচীন পঠাথ সম্বন্ধে [বঙ্গীয় সাহত্য পাঁরষৎ পনিিকায় প্রকাশিত আমার প্রবন্ধ পাঠ করিয়া উক্ত প:থর আধারে উপলন্ধ তাবৎ মূদিত হস্তালাখত প্যস্তকসমূহের মধ্যে অন্যতর প্রাচীনতম বিধায় ] তাঁহার মনে বিশেষ আগ্রহ দেখা দিল [ পাঁরিসে এই পথ হইতে আবশ্যক তথ্য সঙ্কলন কাঁরয়া আবার পূর্বে পাথর প্রাতি প্রিয়বর শ্রীযুক্ত সজনীকান্ত দাস বিশেষ করিয়া আমার দৃঘ্টি আকর্ষণ করেন 1 | একটা বেসরকারণ মহাবিদ্যালয়ের অধ্যাপক শ্রীযুক্ত মদনমোহন নিজ-নিজ হইতেই তিন শতাধক মুদ্রা ব্যয় করিয়া পারিস হইতে পধথখানির এবং লণ্ডন নগরাস্ছ ব্রিটিশ মিউজিয়ম্‌ গ্রন্থাগারে রক্ষিত ভারতচন্দ্রের প্রাচীনতম কালিকামঙ্গল প:থটির ['লাঁপকাল পারিসের পাথর বংসর পূর্বে! মাইক্লোফিল্ম-নকল আনাইলেন। ভারতচন্দ্রু সম্বন্ধে তিনি কেবল ঘরে বাঁসয়া বা প.স্তকালয় মন্থন করিয়া গবেষণা-কার্ষে নিবদ্ধ রাহলেন না। কাঁলকাতার বাহিরে যেখানে-যেখানে ভারতনন্দ্রু সম্বন্ধে কোনও কিছু তথ্য পাইবার সম্ভাবনা তিনি দোঁখলেন, অশেষ পাঁরশ্রম নিষ্ঠা সহকারে সময় অর্থব্যয় কারয়া সেখান হইতে যথালভ্য সামগ্রী সন্ধান কাঁরয়া আনিলেন, এবং ক্ষেত্রীবশেষে আলোকাঁচন্রাদ গ্রহণ কাঁরলেন। এই জন্য তাঁহাকে পাল্ডুয়া (ভূরস-ট), কৃষ্ণনগর, মূলাজোড় (শ্যামনগর), দেবানন্দপূর (ব্যান্ডেল) চন্দননগর, শান্তিনিকেতন প্রভৃতি স্থানে স্বয়ং যাইতে হইয়াছিল এবং কটক, ঢাকা, মহালক্ষনী- গঞ্জ (রাঁচী), মাদ্রাজ, পূনা প্রভাতি নানা স্থানে পন্ন লাখয়া তথ্য সংগ্রহ কারিতে হইয়াছিল। সাহাতাক খটনাটির আলোচনায় এই পূদ্তক বিশেষ মূল্যবান্‌। উদাহরণ স্বরূপ, শবদ্যাসূন্দর এবং চৌরপণ্ঠাশৎ কাব্য' শীর্ষক অধ্যায়ের উল্লেখ কাঁরতে পারা যায়। পাঠক এই আলোচনায় ভারতাঁয় তথা বাঙ্গালা সাহিত্যে 'চৌরপণ্চাশৎ' কাব্যের স্থান সম্বন্ধে বিচার-বিশ্লেষণ পাইবেন, এবং ভারতচন্দ্রের বিদ্যাসুন্দর উপাখ্যানটীর 'নাঁখল ভারতাঁয় একট আধার দোঁখতে পারবেন। অধ্যাপক শ্রীযুক্ত মদনমোহন সঙ্গীত-বিদ্যায় এবং সংস্কৃত-অলঙকারে যেমন,

ভূমিকা ১০ তেমানি বাঙ্গালা ভাষার ইতিহাস বিষয়েও প্রাবশণ্য দেখাইয়াছেন। ভারতচন্দ্রে চাঁরত্রীচন্রণ দার্শীনক বিচার, পূরাণ কোরান উভয় শাস্তের প্রতিপাদ্য বিষয়ের সাঁহত তাঁহার পারচয়, পূর্বগামী সাহিত্যিকগণের নিকট ভারতচন্দ্রের খণ এবং . পদ্ধীতির মাধ্যমে বাঙ্গালা ভাষার মধ্যে নিহিত প্রকাশ-শাক্তর পরিস্ফূরণ--ভারত- চন্দ্রের কাঁবপ্রাতভার কোনও ক্ষেত্র লেখক বাদ দেন নাই। ভারতচন্দ্র রায়গুণাকর তাঁহার জগৎ সম্বন্ধে এই বইখাঁন সত্য-সত্যই যেন একখান 'এন্‌সাইক্লোদ পাঁডয়া' বা বিশ্বকোষ

অধ্যাপক শ্রীযুক্ত মদনমোহন তাঁহার স্বকীয় সাঁহত্যব্যাদ্ধর যথেষ্ট পাঁরচয় দয়াছেন; উপরক্তু, তাঁহার বহু অধায়নের এবং অধায়নজাত উপলান্ধর প্রচুর নদর্শন এই পুস্তকে 'মালিবে। আলোচ্য বিষয় সম্বন্ধে লব্বব্য প্রায় সমস্ত ইংরেজ, বাঙ্গালা, হিন্দী সংস্কৃত পযুস্তক-প্রবন্ধাঁদ তিনি পাঠ করিয়াছেন, এবং এগুলি হইতে যাহা আত্মসাৎ করিবার তাহা সার্থকভাবেই কাঁরয়াছেন। প্রত্যেক অধ্যায়ের পরে প্রদত্ত পাস্তকান্তর হইতে উদ্ধাতর অথবা 'বাভন্ন ব্যক্তির সাহত আলাপে লব্ধ তথ্যাদর পূর্ণ পঞ্জশ প্রমাণ-স্বরূপে তিনি দিয়াছেন, এবং এইভাবে তিনি তাঁহার পুস্তকের মূল্য বহুল পরিমাণে বাড়াইয়া দিয়াছেন।

আমার বিশ্বাস, অধ্যাপক শ্রীযুক্ত মদনমোহন গোস্বামীর রায়গ্‌ণাকর ভারতচন্দ্র, কবি সম্বন্ধে, বঙ্গসাহিত্য সম্বন্ধে এবং বঙ্গীয় সংস্কৃতি সম্বন্ধে বহু বৎসর ধাঁরয়া একখানি প্রামাণিক আদর্শ এবং অনুকরণীয় পূস্তকরূপে বিরাজ করিবে বাঙ্গালী জাঁতর এই দযর্দনে তান এই আভনব পাস্তক দেশবাসীর হস্তে অর্পণ করিয়া বঙ্গসাহিত্যের মর্যাদ বৃদ্ধি কারতে সহায়তা কারলেন_ এই হেতু সকলে তাঁহাকে সাধুবাদ প্রদান কাঁরবে, ইহা নিঃসন্দেহ। এই গ্রন্থ দ্বারা সাহত্যালোচনার ক্ষেত্রে তাঁহার ষে অভ্যুদয় ঘাঁটল, অনুরূপ এবং ইহা অপেক্ষাও মূল্যবান নব-নব গ্রল্থ রচনার দ্বারা সেই অভ্যুদয় উত্তরোত্তর খাদ্ধিযুক্ত হউক, জয়নষুক্ত হউক, ইহাই কামনা কাঁর॥

'সুধমণা,, ১৬, হিন্দ্‌স্থান পার্ক, কাঁলকাতা ২৯1 শ্রীসনধীতিকৃমার ১৫ আষাঢ় ১৩৬১। ২০১৯, চট্োপাধ্যাম্ন

৩০ জন ১৯৫৪

১%০' রায়গযণাকর ভারতচন্দ্

খল

1 মখবন্ধ পরম পূজনীয় আচার্য শ্রীধক্ত সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায় মহাশয়ের . চরণোপান্তে বাঁসয়া ছয় বৎসর কাল পূর্বে যে-গবেষণাকার্ধ্য আরস্ত হইয়াছিল, ঈশ্বরেচ্ছায় তাহা অদ্য সুসম্পর্ণ হইল। বক্ষ্যমাণ গ্রন্থে ভারতচন্দ্র রায়গুণাকরের সম্বন্ধে একট পাঁরপূর্ণ বিবরণী প্রদত্ত হইয়াছে গবেষণার ক্ষেত্রে পূর্্বসরি- দিগের পদাওকানূসরণ অত্যন্ত স্বাভাঁবক অপাঁরহার্যয ব্যাপার। আলেচ্য গ্রন্থে প্রসিদ্ধ অথবা অপ্রীসদ্ধ কোন লেখকের কোন রচনাই যাহাতে অনালোচিত না থাকে, তাঁদ্বষয়ে যথাশক্তি দাঁম্ট রাখা হইয়াছে তত্ব্যতীত, যে-সকল আঁভনব তথ্যাদ মৎকর্তৃক আবিচ্কৃত হইয়াছে বা ইতিপূর্বে অন্যন্র প্রকাশিত হইয়াছে, গ্রল্থ-কলেবরে উহাঁদগের পর্ণাঙ্গ পারচয় পাওয়া যাইবে সুধীগণের রচনা হইতে সুদীর্ঘ অংশ সকল উদ্ধৃত কাঁরয়া বর্তমান গ্রন্থাঁটকে যুগপৎ সমালোচনা সঙ্কলনের রূপ 'দিবার প্রচেষ্টা করা হইয়াছে সত্যাবলোপ কাঁরয়া স্বমত- প্রাতিষ্ঠার উদগ্র আগ্রহ গবেষণা-কার্ষেয নিন্দনীয়; পরস্পরবির্দ্ধ মতাবলী যে-স্ছলে তুল্যশক্তিসম্পন্ন অথচ স্থির সিদ্ধান্তে উপনীত হইবার সম্ভাবনা তদনহ- পাতে ক্ষুদ্র, সেই স্থলে 'বাভল্ন মতানচয়ের প্রদর্শন ব্যতীত অন্যাবধ প্রয়াস করা হয় নাই। একান্ত ইচ্ছা সতেও গ্রন্থের কলেবর বহৃগণিত হইবে এই আশঙ্কায় মৎকর্তৃক এতদ্দেশে আনত লণ্ডন প্যারিসের প্রাচীনতম ভারতচন্দ্র কাঁলিকামঙ্গল পঃাঁথ দুইখানর সম্পাদনা প্রকাশনা ভবিষ্যতের অপেক্ষায় রাহল। ভারতচন্দ্রের অন্যতম প্রচার-কর্তা গোপাল ডীঁড়য়াকেও গ্রন্থান্তরে আশ্রয় দেওয়া গেল [ দ্ুষ্টব্যঃ গ্রল্থ-পৃজ্ঠা ৩২৩, ছত্র ৩-৪]। এঁলসের কাঁবতাবল?ও গ্রন্থ পৃঃ ৩] ধারে ধারে প্রকাশিত হইতেছে ['হোমশিখা' পান্রিকা। (কৃষ্ণনগ্রর)। শ্রাবণ ১৩৬০ সাল__। গ্রন্থোদ্ধৃত 'রমণীর প্রাত' কবিতাটি মাদ্রুত হইয়াছে মাঘ ১৩৬০ সাল সংখ্যায় ||

সমগ্র গ্রল্থখানিতে দুই শতাধিক লেখকের রচনাবলণ এবং প্রায় একশত হস্তালাঁখত পরাঁথ হইতে উপকরণাঁদ সংগৃহত হইয়াছে। প্রাতি অধ্যায়ের অস্তে এতদ্বিষযয়ক পূর্ণ পঞ্জী ষথাস্থানে লাঁপিবদ্ধ করা গিয়াছে। প্রায় প্রাতিটি অধ্যায়ে প্যরাতন তথ্যাদির বিচার-বিশ্লেষণ, এবং নবলন্ধ তথ্যসভ্ভারের পাঁরিবেষণ দৃম্টি- গোচর হইবে। 'িশেষ কাঁরয়া-_কাঁব ভারতচন্দ্রের জন্মভাঁম-নরূপণ বংশ-

লা £ চি রঙ 4: 1 7

তালিকা, চিটিনিরিদি, টি 1ল্ন-কাহিনীর ইতিবৃক্ত, রসমজরখ, বিচার, কৃষ্ন্দ্র-ভবানন্দের কাহিনীর যথার্থতা, ভাষা-ছন্দ-অলঙকার, শব্দ্ভান্ডুর, খিল-ভারতচন্দ্র, ভারতচন্দ্রের অনুবাদ, এবং চিন্নাবলী--এই অংশগযাল সম্পর্ণে আঁভনবত্বের দাবী রাখে সকৃৎ দৃষ্টিপাতে যাহাতে আদ্য্ত গ্রল্থখানির উপজনব্য টা অনায়াসে গোচরীভূত হইতে পারে, তাল্লামত্ত একটি বিস্তৃত সূচপন্ন ন্থ-সূচনাতে প্রদত্ত হইয়াছে।

সামগ্রী-সংগ্রহ-কার্ষ্য যে-সকল সহৃদয় সজ্জনের সাহায্য দেশ বিদেশ হইতে 'মালয়াছে সাক্ষাৎ আলাপ-আলোচনায় কিংবা পন্নাদির মধ্যস্থৃতায় এবং যে-সমস্ত প্রাতজ্ঞান হইতে বর্তমান গ্রন্থের বহ্াবধ মূল্যবান তথ্যসম্পদ আহত হইয়াছে, প্রসঙ্গতঃ তৎসমুদয় স্মরণ করিয়া আস্তারক শ্রদ্ধা কৃতজ্ঞতা নিবেদিত হইল--

বাঁৰধ প্রাভিষ্ঠান £--ব্রিটিশ মিউজিয়ম, লণ্ডন [শ্রীযুক্ত এ, এস. ফুলটন্‌-এর সৌজন্যে (পত্র তাঃ ৭-৮-১৯৫২, ১৯-১-১৯৫৩ খুসঃ)1) ইশ্ডিয়া আঁফিস লাইব্রেরী, লন্ডন [শ্ত্রীঘুক্ত আলফ্রেড মাস্টার-এর সৌজন্যে পেন্র নং এল ১৫। ১৯৫৩ তাঃ ২০-১-১৯৫৩ থচঃ)]1; বিরিওথেক নাঁসওনেল, প্যারিস [শ্রীষূক্ত এম. ওহোভ্রএ-র সৌজন্যে পের নং এম্‌-ীস এম-ও।১৩১৬৩ তাঃ ২১-৫৪-১৯৫১ খতীঃ)1; ভান্ডারকর ওীরয়েস্টাল রিসার্চ ইন্সার্টটিউট, পুনা [শ্রীযুক্ত পি. কে. গোডে-র সৌজন্যে পেত নং এম-এসৃএস্‌ ২০৮১।১৯৫২-৫৩ তাঃ ১৬-৮-১৯৫২ খু৯:)1; গভর্ণমেন্ট ওরিয়েন্টাল ম্যানাস-্রীপ্ট লাইব্রেরী, মাদ্রাজ [শ্রীযুক্ত ট, চল্দ্রশেখরনৃ-এএর সৌজন্য পেন্র নং আর-াস ৭৭১। ৫২ তাঃ ২৫-৬৮-১৯৫২ খুবঃ)]) ণবশ্বভারতঈ-ধিদ্যাভবন, শাস্তনিকেতন [শ্রীযুক্ত পণ্জানন মণ্ডলের সৌজন্যে শেষ পন্র তাঃ ৮-৩-১৯৫৪ খ:৭ঃ)1; বঙ্গীয় এীশয়াটিক সোসাহীট, কালিকাতা [শ্রীধক্ত সরসীকুমার সরস্বতী-্ন সৌজন্যে পের নং এল ৮৭-৫১। ২৩৭৩ তাঃ ২২-৮-১৯৫১ খ:২)]) কলিকাতা 'বশ্বীবদ্যালয় গ্রন্থাগার [শ্রীযুক্ত প্রমীলচন্দ্র বস এবং বাঙ্গালা সংস্কৃত পথ বিভাগের অধ্যক্ষবগেরি সৌজনো?1; ন্যাশানাল লাইব্রেরী, চৈতন্য লাইব্রেরী, সাহত্য পাঁরষৎ €বঙ্গীয়-হিন্দী-সংস্কৃত) কলিকাতা [ সধাশ্নষ্ট কর্তৃপক্ষের সৌজন্যে 1; উলুবোঁড়য়া মহাবিদ্যালয় গ্রন্থাগার [শ্রীযুক্ত হারপদ ঘোষাল-এর সৌজনো 1; উল্‌বৌঁড়য়া ইন্সটিটিউট এণ্ড গভক্টোরিয়া মেমোরিয়াল লাইব্রেরী [শ্রীৃক্ত গোৌরীশঙ্কর মুখোপাধ্যায়"এর সৌজন্যে]; ভারতচল্দ্ পাঠাগার, মূলাজোড়-- শ্যামনগর [শ্রীষুক্ত পান্নালাল মুখোপাধ্যায়-এর সৌজন্যে ]।

ব্যাক্তগত শ্রন্থ-পঠাথ-পন্লাদ সংগ্রহ £-[ভ্রীবক্ত] সনীতকুমার চট্োপাধ্যায়, হেমেন্দপ্রষাদ ঘোষ, সুকুমার সেন, শৈলেন্দ্রনাথ মিন, সূশখলকুমার দে, কালিদাস রায়, সূধীরকুমার দাশগপ্ত,দ্বিজেন্দরনাথ দত্ত মূনসী | দুষ্টব্য £ গ্রন্থ পৃঃ ২৬, টীকা নং ২১], হরেক মুখোপাধ্যায় [শ্রীযুক্ত সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায় মহাশয়কে 'লাখত পন, তাঃ

১15 রায়গুণাকর ভা,

১৭-২-১৩৫৮ বঙ্গাব্দ, কুড়ামিঠা 1, হারহর শেঠ [ পর্ন তাঃ ৩০-৭-১৯৫১, ৭-৯-, ৯-৯-১৯৫২ খন, চচ্দননগর 1, দীনেশচন্দ্র ভট্রাচার্ধয [পত্র তাঃ ৩৯-, ৯-৯-১৯৫২ খ়ীঃ, চু'্ছুড়া] গৌরগোবিন্দ গুপ্ত [পন্ধ তাঃ ২৬-৪-১৩৬০ বঙ্গাব্দ, মহালক্ষনীগঞ্জ (দ্রষ্টব্য £ গ্রন্থ পশ্ট ৩২৪, টণকা নং ৩৫ )], তারকনাথ অগ্ররাল, বারেশ্বর বন্দ্যোপাধ্যায়, শ্রীষুক্তা রাধারাণী দেবাঁ।

অপরাপর ক্ধীবর্গ ₹--[ ভ্রীষূক্ত ] বামদেব তকতীর্থ-সর্্বদর্শনাচার্যা, তারকনাথ ঘোষাল, অনাথনাথ রন্দ্যোপাধ্যায়, বীরেন্দ্রীকশোর রায়চৌধুরী, লৃহাসচন্দ্র রায়, নিাদিবনাথ রায়, অরুণকুমার দাশগুপ্ত, আশুতোষ ভট্টাচার্য, সাজতকুমার বন্দ্যোপাধ্যায়, দিলশপকুমার মুখোপাধ্যায়, বলাইলাল ঘোষাল, গোপালচন্দ্র রায়, বিনয় সরকার।

প্রান্তিষ্ঠান"পর্যযায়ে প্রথম পাঁচটির সহত পন্্-গত এবং অবাঁশস্টগ্ীলর সাহত সাক্ষাৎ সংযোগ ঘটিয়াছে। অন্যান্য যে-সকল ব্যক্তি এবং গ্রন্থকার প্রস্তুত গ্রন্থ-ীবরচনে সহায়তা কাঁরয়াছেন, প্রাতি অধ্যায়ের শেষে তাহা যথারীতি 'লাঁপ- বদ্ধ হইয়াছে যাঁহাদিগের একান্তিক আগ্রহে আলোচ্য গ্রন্থ পূর্ণতাপ্রাপ্ত হইল,

তাঁহাঁদগের হস্তেই এই সাধনার ধন সমার্পত হইয়াছে।

গ্রন্থাট পূর্বে পাশন্ডুলাপ অবস্থাতেই পেশ করিবার অনমাত বশ্বাবদ্যালয় হইতে ালয়াছিল ! কন্ট্রোলার-আঁফস পন্র নং জেন্‌। ১৭৮। ৭৫৯ তাঃ ২৫-৭-১৯৫২ খন৭ঃ1, +কম্তু ঘটনা-চক্রে ইহা মুদ্রতও হইল। এই গ্রল্থটি মুদ্রিত হইল যে-মহানুভব বাক্তর অকুপণ ওঁদার্যেে 'তান নালন্দা মুদ্রণালয়ের সব্ব্বাধ্যক্ষ শ্রদ্ধেয় শ্রীযুক্ত রবীন্দ্রনাথ মিত্র মহাশয়। মুদ্রণ-ব্যাপারের তুচ্ছাতিতুচ্ছ সমস্যা হইতে তিনি গ্রন্থকারকে সম্পূর্ণ মুক্ত দিয়া এবং নিজ স্কন্ধে সমস্ত দায়ত্বাদ গ্রহণ কাঁরিয়া, যে-দস্টান্ত প্রকাশক-সমাজে স্থাপত কাঁরলেন, তাহা প্রশংসনীয় এবং অনুসরণ-যোগ্য। বঙ্গদেশে মুদ্রাকর প্রকাশকের অভাব নাই ধকন্তু দেশের এই চরম দরশন্দ্দনে নবীন গ্রল্থকারকে অগ্রগাঁতির পথে সাগ্রহে সাহায্যকারী সুখ্যাত এবং স্বপ্রাতিষ্ঠ প্রকাশক এই দেশে মুষ্টিমেয় যে-কয়জন আছেন, শ্রীষুক্ত মিত্র মহাশয় তাঁহাঁদগের মধ্যে অন্যতম। এই প্রসঙ্গে নালন্দা মুদ্রণালয়ের কম্মনধ্যক্ষ একানজ্ঞ সেবক শ্রীযুক্ত পণ্চানন বসু এবং সধাশ্লম্ট অপরাপর করম্মিবর্গকে আন্তরিক অভিনন্দন জ্ঞাঁপত হইল-ইগ্হাঁদগের সমবেত অক্লান্ত প্রচেম্টার ফলেই বর্তমান গ্রন্থ মুদ্রুত হইল। সমগ্র গ্রল্থাট মুত হইতে এক বৎসরের উপর [মার্চ ১৯৫৩-জুলাই ১৯৫৪ খঃ] সময় লাগিয়াছে।

আদ্যন্ত প্রুফ-সংশোধন কার্ষ্যে অসীম ধৈর্যের সাঁহত সহযোগতা করিয়াছেন মদীয় সহধম্মণণী শ্রী তপতাী গোস্বামী এবং কিয়দংশে তদটয়া

ছাদকা ০৯৮ অনূজাতা পরম প্নেহাম্পদা রপ্ত মখোপাধ্যায়। ব্যাক্গত সম্পর্ক হেতু ধন্যবাদের 'িন্দুমান্র অবকাশ না থাকাতে কেবল নামোল্লেখ কাঁরয়াই ই'হাঁদগকে অভ্যর্থিত করা গেল।

এত চেস্টা সত্তেও যে মুদ্রণাশ্দ্ধিগ্ল রাহয়া গেল, নিতান্ত সাধারণ পাঁরিচত বিধায় সহদয় সজ্জনবর্গের অসয়া-বিষয়ে সহজাত পরাঙ্মুখতার প্রাত ধর্ভর করিয়া নিশ্চিন্ত হওয়া গেল। গ্রন্থটি মৃদ্রত হইবার পর যে-সকল তথ্য সংগৃহীত হইয়াছে এবং কাঁলকাতা বিশ্বীবদ্যালয় কর্তৃক অনুমোঁদতু হইবার, পর যে-সমস্ত সংশোধন একান্ত করণীয় বাঁলয়া বিবেচিত হইয়াছে, তাহারই একটি তালিকা প্রসঙ্গতঃ প্রদত্ত হইল। এই অংশ প্রণয়নে ডাঃ স্মকুমার সেন মহাশয় বিশেষভাবে সাহায্য কারয়াছেন।

প্র ১৩।. ছত্র (এবং অন্যন্ন)- লক্ষাণীয়, চ্ছলে, লক্ষণীয়।

পৃঃ ১৫। ছন্র ১৮- নাগম্টক, স্থলে, নাগান্টক ...... কাঁবর অন্ততঃ ......।

পৃঃ ১৯। ছত্র ১৩- মঙ্গলঘাট, চ্ছলে, মশ্ডলঘাট মোন্দারণ সরকারের অন্তর্গত)।

পৃঃ ২৪। টকা জেনুবৃত্ত)_বর্তমান হাওড়া জেলায় (প্রাচীন দক্ষিণ রাট়ে) পডহি ভুরশুট' “পার ভুরশুট' নামে দুইটি গ্রাম আছে। প্রাচীন ভূরিশ্রেম্ঠীতে ভূরিকম্মা ত্রা্ষণ শ্রেন্ঠীদিগের বাস ছিল। “আসীদ্দক্ষিণরাঢায়াং 'দ্জানাং ভূঁরকম্মণাম। ভূরিস.্টিরিতি গ্রামো ভূরিশ্রোহ্ঠজনাশ্রয়ঃ ॥+ শ্রীধরাচার্য্য (ন্যায়- কন্দলী)। ভূঁরিজ্ঠাল, ভুঁরশ্রেন্ঠ প্রভৃতি কুলগত উপাঁধ হইতেও উক্ত গ্রামপ্থু 'দ্বজবংশের প্রাধান্য এীতিহ্য সম্বন্ধে জানা যায়। গ্রামের প্রাঁতষ্ঠা পালরাজ্জ- গণের সময় কিংবা তাহারও পূর্বে হওয়া বিচিন্ত নয়। মুসলমান যুগে এই গ্রামের নাম হইতেই পরগণার নামকরণ হয়।

'ায়বাঘিনী” সমস্যার কোন সমাধান অদ্যাপ হয় নাই। অসন্তব নহে, ভূরসূট রাজবংশের কোন বাঁরাঙ্গনা উত্তরকালে উক্ত নামে সাধারণ্যে পাঁরচিতা হইয়াছিলেন। তত্ব্যতীত, লৌকিক দেবতাঁদগের নামের সাঁহত প্রভাবশালখ রাজবংশীয়াদগের নামগত সাদৃশ্য প্রায়শঃ দেখা যায়। যেমন, চব্বিশ পরগণার ধিখ্যাত ব্যাপ্রদেবতা দক্ষিণরায়ের নামে ভূরসূটের কৃষ্ণরায়ের পুর দক্ষিণ রায় জেয়ন্তীপুরের পাথর মতে), বসন্ত রায় দেবতার নামে কৃষ্ণরায়ের পত্র বসন্তরায় (ঢাকার প:ৃথর মতে), বরদা পরগণার শ্যামসুন্দরপূর গ্রামের ধর্ম্ম- ঠাকুর রপ্রী রায়বাগিনণ' হেুগলণ কালেউরনর তায়দাদ নং ৬১৪০৯) দেবতার

নামেও লোক থাকা বিচিত্র নহে! তবে 'রায়বাঘন*' শব্দটির সাহত ভারত্চন্দু

যে পরিচিত ছিলেন তাহার প্রমাণ বিদ্যাস্ন্দর কাব্যের, একটি ছত্রে পাওয়া যায়--'ধায় রায়বাঘিনী সে কোটালের পিসী, (কোটালগণের স্ত্ীবেশ)।-- [কালপে*চার বঙ্গদর্শন--ডাহি ভুরশহটের স্মৃতিকথা, গড়ভবানসপুর (যুগান্তর। &-২-) ১২-২-১৯৫৫ খুীঃ1)। পণ্চানন রায়_-ভুরশুট রাজবংশঃ রায়বাঘনী কালাপাহাড় প্রেবাসী। জৈচ্ত ১৩৬২। পৃঃ ২২৫-২২)]।

২৪। টপকা ১২--মতান্তরে বেসন্তপুরের পথ)... |

২৭। ছন্ন ৪--...প্রবাসী' প্রকাঁশত (আশ্বন ১৩৩৪ বঙ্গাব্দ)...।

২৯। ছন্র ১২ এবং অন্য) মার্টিয়ারী, স্থলে, মাটিয়ারী।

৩৩। ছত্র ১৯--ললনা, হ্ছুলে, কন্যা।

৩৪। ছন্র ৯৫--মীরকাসেমের (১৭৬০-৬৪ থ21ঃ)...1

স্শ্ীলীলুলু

২৮০. রায়গুণাকর ভারতচন্দ পঠ ৩৫। ছনু ৭-কৌতুকরয়শ, স্থলে, কৌতুকীন্য়।

পন ৪০ ছত্র ১৫ (এর পর)-ডাল্লাখত বশ্রাম ঘাঁ এবং খোষালচন্দ্র সমাট শাহৃজাহানের দরবারের গায়ক লাল*খাঁ এবং তৎপর বশ্রাম খাঁ এবং খদশহাল নহেন। পও ৪২। ছন্র ৩--রগজ, স্থলে, রতরগজ। পৃঃ ৪৩। ছন্র ১১-বারেন্দ্রভূমে, স্থলে, বরেন্দ্রভূমে। * পৃঃ 8৪1 টীকা ১৪ (অনুবাত্ত)মান্দারণ সরকান্মের অধানস্ছ মেদনীপুরের উত্তর পূর্বে অবাস্ছিত ঘাঁটাল মহকুমার অন্তর্গত চেতুয়া বরদা নামক পরগণার আঁধকারী শোভা সিংহের উল্লেখ মির্জা নাথনের বাহার্‌ই স্তানই-ঘয়বীতে নাই। উীঁড়ষ্যার আফগান-প্রধান রহিম খাঁর সহযোগিতায় শোভাসংহের ধবদ্রোহের সুযোগ লইয়। নবাব ইব্রাহীম খাঁর অনুমত্যনসারে কাঁলকাতা, চন্দন- নগর চু'চুড়াতে ইংরেজ, ফরাসী এবং ওলন্দাজাঁদগের দুর্গ 'নাম্মতি হয়: ওলন্দাজরাই পশ্চিমবঙ্গের পলায়নপর (২২-৭-১৬৯৬ খ-ঃ) ফৌজদার নুরূল্লা খাঁর অনুরোধে প্রথম শোভাঁসংহকে হুগলশ হইতে বিতাড়িত কাঁরিয়াছিল। শোভাসিংহের ভ্রাতা গহম্নৎ (-হামংত ) সিংহের অত্যাচারের কথা রামেশ্বর ভট্টাচার্যের শিবায়নে ছিপিবন্ধ আছে। বরদা গ্রামে শোভাসংহের রাজধানীর ধচহ নাই, আছে 'রাজার গড়' বা গড়বাঁটকার পাঁরখাবোঁন্টত উচ্চভূখণ্ডের ধৰংসাবঞ্তাষ.এবং অধিজ্ঠা্রী দেবী বিশালাক্ষণ। শোভাসংহের গুরুবংশ বালয়া কাঁথত বাসৃদেবপুরের সং প্রাচীন ভট্টাচার্যাবংশের ধরনীধরের কন্যা দয়ামশ্ীর সাঁহত ভূরসূট রাজবংশের বংশধর রাজচন্দের বিবাহ হয়। বসন্তপুরের পাথর মতেঃ গোপা পেণ্চম পত্র) নরোভ্তম ঝামসন্তোব রাধাবলপভ রাম- কৃষ্ণ রাজচন্দ্র (১ রামভক্ত, ঈশান, উদয় (১৮ বন্তমান প্রপৌন্ পঞ্চানন 11 বেচারাম।-_]কালপেণ্চার বঙ্গদর্শন- চেতুয়া-ববদার কাহিনী, চেতুয়া-বাসুদেবপুর (যুগান্তর। ১-৭-; ৮-৭-১৯৫৫ খহ2)]1 পুঃহ 8৪1 টপকা ১৫ (অনুবান্ত)মতগ্রণত প্রবন্ধ 'গোপাল ভাঁড়ের নামে প্রচলিত গল্প- সংগ্রহ [হোমশিখা পান্রকা। কফনগর। আঁম্বন ১৩৬১ বঙ্গাব্দ ।]1 পঃ:8&। টীকা ১৯ (অনুবূত্তি)১_ভারতচন্দ্র-বার্ণত কৃষ্চন্দ্রের (১৭১৯০-৮২ খহঃ) পপ্রয় জাতি চাঁদ রায়' শ্রীপুরের চাঁদ রায় কিংবা রুদ্রু রায়ের দেওয়ান বলিয়া কাঁথত্ত জনৈক চাঁদ রায় নহেন। ইনি সম্পূর্ণ পৃথক ব্যাঞ্ত। চাঁদডাঙ্গায় বোগআঁচিড়া গ্রাম, শান্তিপুর থানা, নদীয়া জেলা) চাঁদরায়ের যে শিধমান্দির আছে, তাহার নির্মাণকাল ১৫৮৭ শক ('শাকে বারমাতঙ্গবাণ হরিণাজ্কে') ১৬৬৫ খোঃ। ইানও ভল্ল ব্যা্ত।-খগৌরীশঙ্কর সরকার-চাঁদরায়ের মান্দর (হেজ্মাঁশখা। মাঘ ১৩৬১৯ বঙ্গাব্দ)]। বীরনগর-(কউলা)-নিবাসী রামেশ্বর খিব্র মৃরশদিকুলি খাঁর শাসনকালে (১৭০৪-২৫ খঃ) সবে বাঙ্গালার রাজস্বাঁবভাগের মুস্তোফশ লেনায়েব কানূনগোট) পদে উন্নগত হন। রামেশ্বরের দুই পূত্র-রঘুনন্দন অনস্তরাম। কস্তু ভারতচন্দ্রের বর্ণনানসারে-_কুল্পমালে রঘদনন্দন মিত্র দেওয়ান তার ভাই রামচন্দ্র রাঘব ধামান্‌॥' রঘুনন্দন ১৬৩০ শকে (5১৭০৮ খুশঃ) হুগলন' জেলার আটিশেওড়া গ্রামে বাস করেন উক্ত গ্রামের নূতন নাম হয় শ্রীপূর। অনস্তরাম সুখাঁড়য়া গ্রামে বসাঁত করেন। এই স্থানগলি তৎকাহল বাঁশবোড়িয়ার জমিদারীভুক্ত ছিল। জমিদার রাজা রঘূুদেধ রঘুনন্দনকে আট- শেওড়া গ্রামে ৭৫ বিঘা মহান্তরাণ ভুমি দান করেন; তত্ক্যতশত, রঘুনন্দন বর্তমান হুগলী কালেন্টরণীর তৌজশী নং ১২, শ্রীপুর তেস্তুলিয়া মোজা এবং পরগণা হাতীকান্দার অধীনস্থ নং ১৩ পাঁচপাড়া মৌজা রঘুদেবের নিকট হইতে ত্রয় করেন। নদীয়ারাজ কৃষচন্দ্র একটি দানপত্রে (১৬-৫-১১৩৭ বঙ্গাব্দ) তাঁহাকে বাগিচা করিবার জন্য পলাশী, বেলগাঁ, কালকাতা হাবেলগ সহর পরগণায় ৩০ বিঘা নি্কর জঙ্গলভাঁম দান কারয়াছিলেন। শ্রীপুরে মির-মৌস্তাফশীদগের

পৃঃ

কী

পূঃ

বু

পঃ ঠে বৃ 2 চি

* শি

প্‌

কি

চি প্‌ও 2

বডি প্‌ঃ প.ঃ প.ঃ

প,

পৃঃ প্‌

$5। ৫৯। ৬০। ৬৩। ৬৭। ৭01 2৩ 9981 ৮২

৮৩।

৮৩।

৮ড।

৮৯।

১১১৯

৯৫1 ১০৩ ১০৩।

৯০৪।

১০৫

টি ৯১১৯।

৯৯০

টি ৯১৯১১ £ ৯*২৯। 8৪ ৯৩০।

১৩৩।.

১৫৪। ১৮ড৬।

পৃঃ ১৯৭।

প্রতিষ্ঠিত বহু সক্ষ্ফারুকািশিক্ট দেখালয় বর্তমান, তল্মযো 'কয়েকাঁউীয় অবস্থা সুজপর্ণ।

ন্লিবেণণর জগন্নার্থ তকর্পিপ্ঠানন ভট্টাচার্ধয, গদাপ্তিপাড়া নিবাসী পশ্ডিত বাণেশ্বর 'বিদ্যাল*্কার .তৎকালে প্রাসদ্ধ 'ছিলেন।-- ১9 বঙ্গদর্শন-- ভ্রিবেণীর জগন্নাথ তর্কপণ্টানন, গ্যাপ্তিপাড়া গ্াাশ্তিপাড়ার পাঁণ্ডিত সমাজ, শ্রীপুর বলাগড় ফেগাত্তর! ১৩৪১১-; ২০-১৯-;) ২৭-১১-; ১১-১২-১৯৫৪ খহগ3)]1

১৪--মম্মথ, স্থলে, মম্মট। ২৫--অনুমান্র, স্থলে, অণুমান্ন।

১৪ তগোতৃ্ট স্থলে, তপে তুষ্ট।

১২-_জপ্রনান্দ, স্ছুলে, জশবানন্দ।

৩১-_বিশ্বাবিদ্যাসংহ, স্ছলে, বিশ্বাবিদ্যাসংগ্রহ

১১ (এবং অন্যন্ন); ২৫-_গহ্ঢালকা, স্থলে, গদ্ডাঁলকা; ডা চ্ছলে, জাতি ছতন ৫--দ্ীচৈতনাদেব ...... হইদতই, স্থলে. এই শতাব্দীয় অপর একটি 'বিশিষ্ট অবদান হইল রম-সন্কীর্তন।....... খুশিষ্টশয় ...... | ২২- গঙ্গাভভততরাক্গিনগ, স্থলে, গঙ্গাভাক্তিতরঙ্গিণস। ১৪ (এবং অনান্ন)--এাঁসয়াটিক, চ্ছলে, এাশয়াটিক। ২৭ এবং অনান্)- প্রাণারাম, স্থলে, প্রাণরাম। ২২--গগনবেত, স্থলে, গগনবেড়। ১৬--পশরবহ্যাম, চ্ছুলে, পশীরবহরম্‌। (এবং অন্যন্ন)_-বসন্তাতিলকা, স্থলে, বসন্তুতিলক। ১১৯--কল্যাণধিপ, স্থলে, কল্যাণাধিপ। ২৭--১০/৮1৫6, চ্ছলে, 5৫1116706 ১১--৩ম ভাগ, স্থলে, ওয় সং। ১ম ভাগ। ছল্ল ৪: ১৮--পব: গুল, স্ঘলে, পাব; গুণটী। ২৪; ২৬--জগাদেবং' 'ভরবিস্তো” শব্দদ্বয় বযথান্রমে পরবস্তাঁ ছন্রদ্থয়ে বাঁসবে। ছন্র ১৭-_অম্বঘোষ, চ্ছলে, বৃদ্ধঘোষ। ছত্র ১২--০77715 2171, স্থলে, 3820 10) টীকা ১৮ (অনুবৃত্তি) -যোগেন্দুনাথ গুপ্ত- সাধক কবি রামপ্রসাদ (কলিকাতা। ১১6৪ খুশিঃ)। টীকা ২০ (আনুবত্তি)কেবল একটি গানে মোলিনী শুনলো কাতর বাত--+) মধ্সূদন নামের ভাঁণতা পাওয়া যায়--'কহে মধ্ুসদন, রহ ধান দুইদিন, পহর পণ্চ উপাস॥' ডাঃ সকমার সেন বলেন, গৌরখমগল মধুমীল্লকামঙ্গলের কাব মধুসূদন চন্রুবন্তর্ীর রচিত একখানি খাণ্ডিত বদ্যাসূন্দর কাব্য পাওয়া শগয়াছে। টীকা ৫০ (অনূবাত্তি” ভষ্টব্য মদীয় প্রবন্ধ "সংস্কৃত ভাষায় বিদ্যাসুন্দর-প্রসঙগ কাবা' ['কায়স্থ সমাজ' পাল্রকা। ৩৫ বর্ষ। ১৩৬২ সাল-_। ৮৫, গ্রে স্ট্রট কালকাতা & হইতে প্রকাঁশত।]। ছন্র ১৬--ভুষণামদ্ধরচনা, ্ছলে, ভূষাণামন্করচনা। পু ১০- অস্বীকার্ধয।

অনস্বীষার্ধয, স্থলে জিও ৯২০৯৯৮ গলে, আভিলাবার্খীচস্তামাণি।

প্রত 7 শী

টি, £

নানি

বর

পৃঃ প্‌

প্‌ও

২0০1

২১৮।

রায়গুণাকর ভারতচন্দর

ছ্ন :&- নর্ণনুক্রামক, গুলে বর্ণানুক্রুমিক।...... প্রদত্ত তাঁলকাঁটিতে পর্ধ্ধ- জপ ছত্র (-এর পর)_ হীরা যেন হেমে। [র*]'

২২১। টণকা ৫৬ অনূবৃত্তি)-করেঙ্গে ইয়ে মরেঙ্গে।

২২২। টীকা ৬৯-_দশাননো হরে, স্ছলে, দশাননোহহরৎ।

২৩৩। “ছন্র ২৭--শিল, স্থলে, শিব। ২৩৪। টকা ৬-_কাহিত্য,*স্থছলে, সম্ভহত্য।

২৫২। ছত্র 55৮5 স্থলে, পদ্মপুরাণোক্ত।

রেড ২৫৮। *১৭৮। ২৮০। ২৮৬] ২৮৯। ২১১। ২১৩ ৩০৩।

মুই সরস্বতী। খগ্বেদে দেবী নদীর্পে, পরবত্তাঁ ব্রাহ্মণ গ্রন্থে ভিন বিভা হন দেবীর রূপ বাহন [পল্ম, হংস, ময়র, মেঘ, সিংহ (মহাযান বৌদ্ধমতে মঞজ:শ্রীয় শাক্তর বাহন)] পরিকল্পনাতেও প্রভেদ বর্তমান। তিব্বত, যবদ্বীপ, জাপানেও এই দেবতার পূজা করা হইয়া থাকে। ছন্র ১৯-কাহিনশটিরই, স্থলে, কাহিনীটিই। ছত্ ২১--ভব, চ্ছুলে, ভবঃ।. ছন্র ১; ১৯১--১৭৪২, স্থলে, ১৭১২1. . তাঁহার (অর্থাৎ বাহাদুর শাহের)... ছন্র ১৬-_...... মহম্মদ শাহের (১৭১৯-৪২ খুসঃ)...... | ছন্র ২১--পুনবিল্দপ্রস্থং, স্থলে, পানারিন্্প্রস্থং। ছন্ৰর ২৬- মোগলাদতগ, স্থলে, মোগলাদগকে। ছন্র ১২/ ১৪--১০৮১,'স্ছলে, ১৮০১: ১২ ২।, স্থলে, ১৪1 ২1। ছন্ন ১--হেলদাঙ্গেঃজশী, স্থলে, হালেদঙ্গেজী। ছন্র ১০ (অনূবনপ-প্রুসঙ্গতঃ উল্লেখযোগা, হেরাসিম লেবেডেফের নাটক আদৌ মাদ্রত হয় নাই। লেবেডফের ব্যাকরণের নামপন্রে শ্রী চন্দ্র রায় ইনি শ্রী ভারতচন্দ্র রায় বালয়া অনুমিত হইয়া থাকেন) বিরচিত 'বিদ্যাসুন্দর কাব্যের এই উদ্ধাতিটি পাওয়্ম যাইতেছে

£ 5৮100170 2801701, [২915 1:010110 121)916) 10812701012 9010. 91)9310 [)0191)0 1900060. 4১৫26 096. 06:000] 0200079 19019; 10০19-10100 2016 20000 900008160 2017009. ]1011191), (00016, ঠ০90, 10160070100; 91000 0219 1081000 51551015710 0101021, 098100 00716 82107915100 1676190 19916; 10130 [)01160100% 0518 10110 081:269.+-196226 5700%. 1701. 7. 91716 ০7097270219.

তীঁ "শুন আনন্দিত. রাজা কাহিল তাহারে: বেয়াকরণ আদ শাস্ল পড়াহ বেদ্দেরে। আজ্জা পাএ বিপ্রবর বেদ্দেরে পড়ায়: বেয়াকরণ আদ” কাব্য শাক্ষত নর্ণয়। জৈৌতিষ, িপ্পনীঞ টকা, কতেক পেরকার: অল্প কাস্ল বহু শাস্তে হৈল আঁধকার। চিত্র করী এক-শ্লোক লেকেলেক পাতে: নিজ পরাঁচয় দেইআ তুইল তাহাতে ।*-বেদ্দে শন্দর, প্রথম খণ্ড, শ্রী চন্দ্র রায়।]।

,. এইস্থলে লক্ষণীয়, রাজা কর্তৃক আদিম্ট হইয়া সূন্দরের বিদ্যাকে বিবিধ শাস্ত-শক্ষাদান এবং পল্ম আত্মপারচয়-জ্ঞাপন ভারতচল্দের বিদ্যাসূন্দর কাব্যের প্রাচীনতম পণথযগলে ব্রাটশ গমউজিয়ম বিবিওদথক 'নাঁসওনেলে সংরাক্ষিত) এবং কোনও মাদ্রুত সংস্করণে দণ্ট হয় না। তন্্যতপত, কবির নাম

, ভারতচন্দ্র নহে এবং এই নামে অন্য কোন রচনাও পাওয়া যায় না।

লস্ডনস্থ রুশ রাষ্ট্রদূত ভোরোনসভ্কে লিখিত হেরাঁসম লেবেডফ- 5 গেরাঁসম- চ্টেপানোভিচ লেবোঁদয়েভ:1-এর পন্পে (২৬-৭-১৭৯৭ খ০ীঃ) জানা যায় যে, তিনি 'স্যবখ্যাত কাব ভারতচচ্দ্র রায় কর্তৃক রচিত বদ্ধমানের রাজকন্যার বিবাহ সন্বন্ধীয় কাব্যখান রূশভাষায় অনুবাদ কাঁরয়াছিলেন।

৩০৩।

পঃ ৩১২।

পি পঃ

৩২০।

৩২০।

৩২৩।

৩৩৭। ৩৬৯।

৩৯১১।

৩৯১৯। ৪৯২। ৪*.১। ৪৩০। ৪৩৩.

৪৩৪। ৪৩৭। ৪৩৭

৪৪১৯

8৪৪২।

ভাঁকা . ৯%/

ছন্ন ২৩-....... মাঁতলাল ৯৭৭১-১৮৪৪ খংপেঃ। বর্তমান ১৯ দুর্গা পথূরী লেন। * কালকাতা ১২)...... 1

ছনর ৫-_যতীশন্দ্রমোদন, ক্লে, যতী ন্দ্রমোহন।

টকা ১--%:৮£৩, ক্থলে, 8216.

টকা ২- গঙ্গাঁকশোরের গ্রন্থটি ভবল কলমে ছাপা তিনখণ্ডে মোট ৩১৯৮ পৃজ্ঠা। চিত্রসূচী- অন্নপূর্ণা (01911000829), সুন্দরের বন্ধমান যাল্্া, সুন্দরের বন্ধমান প্রবেস (9০০23৫৩2770. 199:০0277), সুন্দরের বকুলতলার বৈশন, ধদ্যাসূন্দরের দর্শন 0810091) 2/0 9০০1706£), চোরধরা (5০017067 8150 69121)। দ্বিতীয় তৃতশয় চিত্রের নিম্নে লেখা আছে-_ ' [10550 1 [২017১019100 চ.০০.

ছন্র ১০ (অনুবৃত্ত) পক্ষান্তরে, এই প্রভাব উভয়তঃ থাকাও অসম্ভব নহে।

টীঁড়ষ্যা দেশের বিশিষ্ট গায়কী গোপাল উড়িয়া কর্তৃক বঙ্গদেশে আনীত

হইতে পারে।

টীকা ১৫--সভাজনের, চ্ছলে, সভ্যজনের।...... [রবধন্দ্রনাথ-_আধানক সাহত্য

(বঙিকমচন্দ্র)]।

ছন্নু ৩২ (অনুবূৃত্তি)--কালপেশ্চার বঙ্গদর্শন--উজানীনগর-কোগ্রাম ২, মঙ্গল" [যুগান্তর ২৬-৬-, ৩-৭-১৯৫৪ খুসিও]।

টপকা (অনূবান্ত)_ভারতচন্দ্র-বিরচিত ধবদ্যাসূন্দর কাব্যের নায়ক সুন্দর

“কারি রায়' “মহাকবি রায়", এই দুই নামে বহূশঃ আখ্যাত হইয়াছেন।

প্রসঙ্গতঃ স্মরণ করা যাইতে পারে, পশ্ডিতরাজ জগন্নাথ সুন্দর-শঙ্গার

কাব্য-প্রণেতা কঁবি সূন্দর সম্রাট শাহজাহানের নিকট হইতে 'কাঁব রায়” এবং

'মহাকাবি রায়' উপাধিষগল পাইয়াছিলেন। অসম্ভব নয়, ভারতচন্দ্র তদীয়

কাব্যে উক্ত উপাধিযুগলের প্রাতিধযানি কাঁরয়া থাকিবেন।-কোলিকারজন

কানুনগো- শাহজাদা দারাশূকো (প্রবাসী ভাদ্র ১৩৫১৯, বঙ্গাব্দ

৫২৯-৩৪)]।

ছন্দ ২৪-কোতায়াল, স্ছলে, কোতোয়াল।

ছন্ন ৯--11, শ্ালে, | |

ছন্র ২৫ (অনুবৃত্ত)- প্রদত্ত তাঁলকাতে মোট ৩৮০ শব্দ আছে।

ছন্র ২৭ (-এর পর)--বরবাদ €৫ ফা* বরবাদ: _ নষ্ট

ছন্র ২; ৭: (-এর পর)-মেকী «৫ আত মকর্‌- কৃরিম।

যাদ. « ফাণ য়াদ্‌ -স্মরণু। যার ফা য়ার্‌ _ বন্ধং।

ছন্ধ ১৯; ২০--সাহ.ব, ক্লে, সাহ.বঃ 1শারনা, স্থলে, শশরণণী।

ছন্র (-এর পর)-_অঙ্গসঙ্গ 5 সহচর!

ছন্ৰর (অনুবন্তি)-'অহমিতি বীঁজম্‌, সঃ ইতি শাক্তঃ, সোহহর্মিত রাীলকম

রি ১১ (অনুবৃত্তী--...:.. নামক দেশ। দ্রাবড় দেশে (- তমিল-নাডুতে)

নিদনাতী নর তাঁমল ভাষায় নাম পারবর্তনের ইংরেজী বিকাতি

00711662767, ছত্র ১৪ অেনূবাভ্তি)--...... বজ্যানী বৌদ্ধসাধনায় সংসারের বাঁজর-পা পণ ক্কন্াত্মক শাক্তুই হইতেছে কুল'। এই পণ্টকুল (-বন্, পদ্ম, কদম" তথাগত, রক) ভ্রুমে ছ্ুমে পন্চবৃদ্ধ (5 বৈরোচন, অক্ষোভ, রত্বসম্ভব, অমোদাসাদ্ধ) শাক্ততে পাঁরণাঁত লাভ করে। বান সাধন বলে এই কুল লাভ করেন, তাঁনই যথার্থ 'কুলীন। বাঙ্গালা দেশে সূদীর্ঘকাল বোৌদ্ধধম্মে'র প্রাধান্য থাকাতে সম্ভবতঃ বৌদ্ধ 'হন্দূতল্মের সমন্বয়কালে, এই দেশের রায় নল জানো এই গা আহ প্রত হিলের পরে অবশ্য সামাজিক ক্ষেতে এই শব্দাট মধযাদাজ্ঞাপক, ছুইক্সা ব্যবহৃত হইয়াছে।

১/%

পও পঃ

পও

পিঃ

পঃ

88 ৮। ৪৬০1

৪৬০।

৪৬০।

৪৭৭ |

রায়গ্যগাকর ভারতচল্দু

শাকালপেশ্টার বঙ্গদশনি-সোমড়ার ইতিবৃত ফ্েগাতর! খুঃ)]। ছন্র ২ই; ২৫--আক, স্থলে, আখ; রজদর্শনোৎসব, স্ছলে, রজোদর্শনোধসব। ছত্ন ১৮৫এর পর)-ঘে) এাঁডন্বরা বিশ্বাবিদ্যালয় স্কেটজ্যাণ্ড) - গ্রন্থাগারে

ক্ষত পদযাস্দর প্রা নং বালালা পি ১। [পি খাণ্ডত; পদাঞ্পকা, শলাপিকর, লাশপিকাল, সংগ্রাহকের উল্লেখ নাই। পল্র সংখ্যা ১১০। মাপ ১০৮১৬” (লেখা ৭২"*৪ই” )1 প্রতি পত্রে ছন্র সংখ্যা গড়ে,১৬। প্াথাঁটর প্রথম আঁতরিক্ত পঙ্ঠাতে লিখিত ডি.এণ্ডারসন্‌ নাম এবং প্রথম পষ্ঠায় মূল পাঠের উপর 'লাখত ইংরেজণ প্রাতিশব্দাবলশ দেখিয়া মনে হয়," সম্ভবতঃ জনৈক অববাঙ্গালণ ব্যাক্তি (ইনি উক্ত নামধারীও হইতে পারেন) পরথাঁট অধিগত কাঁরতে প্রয়াস পাইয়াছিলেন। গ্রন্থারস্তে আছে-শ্রীন্ত্রী নম [বায় £_-ভাট মুখে সনিয়া বিদ্যার সমাচার। উথাঁলল সুন্দরের শুখ পারাবার।”" ইত্যাদ। গ্রল্থশেষে আছে-_“সন্যাশটা আছেঃ ভূপাঁতর কাছেঃ গনত্য আইসে তোর পাকে কি বাল রাজারে” 11 শ্রীযুক্ত ভি. ই: গ্রশীফিৎস্‌- এর সৌজন্যে প্রাপ্ত বিবরণ 1 গ্র্থকারকে লিখিত পন্র তাঃ ১৭-১১-১৯৫৫ খুপঃ 11 ছন্ন ১৪ অনুবৃত্তি)পত্র সংখ্যা ৪1 প্রথম শেষ পৃঙ্ঠা ব্যতীত উভয়. পড্ঠায় লিখিত। মাপ ৯২৮ ৩২1 প্রীতি পরে গড়ে ৬-৭ ছন্র। সম্পর্ণ।' পরথটির একটি প্রাতাঁলাঁপ পটব্রপরিচয়' অধ্যায়ে সংযুক্ত হইল। ব্যা্তগত পদাথ সংগ্রহ . ৃঁ

শ্রীঘক্ত পঞ্চানন মণ্ডল [ 'পল্লাশ্রী'। পোঃ ছোট বৈনান, জেঃ বদ্ধমান। ] কৃত 'পল্ল+ভ্রী সংগ্রহ'-এ সংরক্ষিত পাথ-নং [অন্নদামঙ্গল। খণ্ডিত। প্র ২০]; নং ৬৮ [অন্নদামঙ্গল। খাঁণ্ডিত। পন্র ৩-৬২]।

শ্রীযুক্ত হেমেন্দ্রনাথ পালিত [পোঃ ভাদুল। জেঃ বাঁকুড়া ।] মহাশয়ের গগ্রহে রাক্ষিত বদ্যাসূন্দর (5 অন্নদামঙ্গল, অন্পূর্ণামঙ্গল, কালিকামঙ্গল, কালিকাপুরাণ) কাব্যের পণথ-_কে) পন্তর ৪৮। সম্পূর্ণ লাঁপকাল ১২৩১ বঙ্গব্দ ১৮২৪ খুঃ। নিপুণ হস্তের সপরিচ্ছন্ন লিপিযুক্ত এই পঠাথাটিতে রাগরাঁগণীর *উল্লেখ আছে। 'লাপকরের নাম নাই। পথ আরপ্ত-_ শ্রীত্রী রাধাকৃফঃ ভাটমূখে শুনিয়া বিদ্যার সমাচার উথাঁলল সুন্দরের সুখ পারাবার 7'- ইত্যাদ। পণথর শেষ- ইতি পথ হইল সায় ভারত ব্রাহ্মণে গায় কৃষ্ণচন্দ্র জারে আদোঁশলা। অন্নদাঙ্গল কথা সুনিলে খণ্ডয়ে বেথা দ্‌ংখনাশা আঁম্বকার লীলা হীত 'বদ্যাসুন্দর ইতি সন ১২৩১ সাল তাঁরখ আসাড়?। (খ) পন্ন ৬৫। সম্পূর্ণ 'লীপ্ুকাল ১২৪৪ বঙ্গাব্দ - ১৮৩৭ খুিঃ। অনিপৃণ প্রনাদপূর্ণ হস্তালপি। প্‌ম্পিকা-লেখক শ্রী হলধর মাঁজ। সাঃ মদনপুর। সন ১২৪৪ সাল। ২০ অদ্রাণ। বেলা দৃইদন্ড'। গে) পন ১-২৩। খণ্ডিত। এই পর্থট সপ্ভবতঃ কে) পঠাঁথ লেখকেরই লিখিত? পালিত মহাশয় মনে করেন, াঁকুড়ায় অন্নদামঙ্গল বলিতে বিদ্যাসন্দেরই বূঝাইত। বাঁকুড়ার অন্প- শিক্ষিত শাক্ষত সমাজে বিদ্যাসন্দরের প্রচলন ছিল। কোন সময় কির-প- ভাবে এই দেশে ইহা প্রচ্গালত ছিল, চ্তার বিষয়'--গ্রন্থকারকে লীখত পর তাঃ ২৬-১০-৯৯৫৪ খু31]1

ছব্ধ ২২; ২৬--১২৩০ সাল-১৮২৩ খীও, স্থলে, ১২৪০ সাল ১৮৩৩ খুশিই ।...... ১৮২৯ খ:গঃ)। সচিত্র (১০ খানি ছবি)।...... | ছন্ন ১০--পৃও খ, স্থলে, পু ৬খ।

৪-১৭-১৬৫ড

ঙঁ

পড় ৪৮৭ হুন্র ১৬- কেনা, স্থলে, কোন।

পঃ

চে

প্‌

৪৯২। ছত্র ১৭-_ধবলেশ্মনি, স্ছলে, ধবলবেশ্মনি | ৫০১1 ছত ২৩) ২৫- দরিদ্র, স্ছলে, দারিদু; প্রভু, চ্ছলে, ্রড় এরেইর্পে অনার)।

বত 5৭ সির হু 7:21 লা গত তি র্‌ তর ১, মু টন চর ভুমিকা. গ৯০ রঃ র্‌ চা রর রঙ

পৃঃ ৫০২। হয় ৪; ১; ২০; ২৪) ২৫; ২৬--ধরে ধরে, ছলে, ঘরে ২1 সি কুলে, শসর্মি পিক জগৎকৃত্া, ছলে, জগ-[-তকর্তা]। বায়া, ছলে, বাত। অধিকারাঁ, হ্থুলে, অধিকারি। য়েহ, ছলে, ভেহ। জাতশয, হলে, আতর

, কারিনু, স্থলে, কারন্‌।

পৃঃ ৫০৩। ছত্র ২; ৩--সর্মন, চ্ছলে, সর্মান; পাকুড়, চুলে, পাকুড়।

পঃ$ ৫০৫। ছ্র ৩৭-রামচরন, গ্ছলে, রামসরন।

পৃঃ ৫১১। টকা ৪৯ অন্ব্াস্ত)-সংপ্রণীত প্রবন্ধ গোপাল ভাঁড়ের নামে প্রচলিত গল্প- সংগ্রহ" [হোমাশখা। কৃষনগর। আশ্বন ১৩৬১ সাল।] দ্রম্টব্য।

প্রসঙ্গতঃ উল্লেখযোগ্য, ডা সুকুমার সেন তায় প্রবন্ধে [গোপাল ভাঁড়ের

সন্ধানে হোমশিখা। আশ্বন ১৬১ সাল।)] অন্নদামঙ্গলের নজীরে ন্আতি প্রয় পারষদ্‌ শঙ্কর তরঙ্গ হরিতে বলরাম সদা রঙ্গভঙ্গ ॥) শুকুর তরঙ্গ (কেরীর ইতহাসমালা। ১৮১২ খ:গ1) প্রাবং বলরাম (5 রামবোল) এই দূই ব্যাক্তকে গোপাল ভাঁড়ের নামে প্রচলিত গঞ্পগ্ীলর সৃষ্টিকর্তা বলিয়া মনে করিয়াছেন; কে জোগান উড মো তডিভাতা হা বাত: তান অন:মান করেন। ণকন্তু এই উভয়বিধ অনুমানের কোনটিই প্রমার্ণাসদ্ধ নহে। কারণ, অন্নদামঙ্গলের সুপ্রাচীন পশীথগুূলিতে মুদ্রিত জংককরণসমূহে হুরাহত রামবোল সদা অঙসঙ্গ' পদাটই রাইয়াছে; পূর্বোক্ত পদটি বঙ্গ সাহত্য পারষৎ সংস্করণে ব্যবহত একটি পর পাঠান্তর মাত্র (অন্যালাখিত ১১৯২ বঙ্গাব্দ - ১৭৮৫ খু3ঃ)। এতত্থযতীত, গোপাল উঁড়য়া গোপাল ভাঁড়ের আঁভন্নত্ব প্রাতপাদন অন্মাতর' অবাঞ্ছিত সম্প্রসারণ মান্ন। সমাচার দর্পণেও (২৬-১০-১২৩৬ বঙ্গাব্দ 5 ৬-২-১৮৩০ খঃ) কৃফনগর রাজসভার ভাঁড়ের উল্লেখ আছে কিন্তু তাহার নাম করা হয় নাই--'তাঁহার সভার ভাঁড় অন্য ভাঁড়ের ন্যায় পাণ্ডিত্য রাঁসকতা বিষয়ে আতশয় শ্রেষ্ঠ ছিল তাহার অনেক রহস্যকথা অদ্য পর্যন্ত এতদ্দেশে প্রচরদ্রুপ চলিত আছে”।

পৃঃ &৫১৬। ছন্ন ২৪--ললনার, স্থলে, নান্দনীর।

পৃঃ ৫২৯। ছত্র ২-য্দ্থা, স্থলে, ্া। পু

অত্যন্ত পারতাপের বিষয়, যাহার (স্বর্গত রবীন্দ্রনাথ মিন) মহানুভবতায় প্রস্তুত গগ্রল্থ লোকসমাজে আত্মপ্রকাশ করিল, তিনি ইহার ম্রতকলেবর মান দেখিয়া গেলেন, প্রকাশকে চাক্ষুষ কারবার অপেক্ষা কারলেন না। তাঁহার কার্য তিনি সসম্পন্ন কাঁরয়া 'িয়াছেন, গ্রল্থকারের পূব্বানবোদিত কৃতজ্ঞতা কি বর্তমান ব্যথাবিধুর শ্রদ্ধার্ঘ্য দ্বারা সম্পূর্ণ হইবে? এই প্রসঙ্গে প্রস্তুত গ্রন্থের মুদ্রাকর প্রকাশক স্বগাঁয় মিন মহাশয়ের সুযোগ্য আত্মজ শ্রীষূক্ত শ্যামলকুমার মনকে তদীয় িতৃদেবের আরন্ধ কার্ধকে সুসমাপ্ত করার নামত্ত আন্তরিক আভনন্দন জ্ঞাঁপত হইল। , * প্রস্থুত গ্রন্থ রসবোদ্ধাদিগের নিকট উপস্থাপিত করা গেল। ইহার সব্ধ্রাহতা তথ্যসম্পূর্গুতা বিশেষতঃ ইহার সাহিত্যিক, দার্শীনক, এীতহাসিক এবং ভাষাসম্পক্তি আলোচনা যাহয্তে কবির রচনাবল'র

১৬৯: রায়গুণাকর ভারতচন্দু

জনন গঠনের পাঁপূ্ণ উপকরণ প্রদান করতে গারে, তে বধাশা প্রয়াস সত্তেও ইতশ্চেতঃ অনিচ্ছাকৃত অনবধানতাহেতুক যদ কোন ঘুুটি-বিচ্যুতি পরিলাক্ষিত হয়, প্রন্থনায়ক ভারতচন্দ্রের ভাষাতেই বিনাঁত রাহল--রাঁসক পণ্ডিত যত, যাঁদ দেখ দুঙ্ট মত, সার দিবা এই নিবেদন'। ইতি]

ব্রিজধাম?

৪নং রাজনারায়ণ বিশ্বাস লেন, কালিকাতা ১৫-৩-১৩৬১ বঙ্গাব্দ, ১৭-৮-১৫৬২ বঙ্গাব্দ শ্রীমদনমোহন গোগ্বামণী॥

৩০-৬-১৯৫৪ খালম্টাব্দ, ৩-১২-১৯৫৫ খুখণ্টাব্দ |*

1 রসো বৈ সঃ রসং হ্যেবায়ং লব্ধবানন্দীভবাঁতি ॥& যেহোক সে হোক ভাষা কাব্য রস লয়্যা

॥১॥ বিষয়-প্রবেশ

যতনে রাখবে বঙ্গ মনের ভাস্ডারে রাধে যথা সুধামৃতে চচ্দের মণ্ডল [১11

চর্যাপদ বঙ্গ ভাষা সাহত্যের গঙ্গোনী। ধে নব-জাত শিশু-)4512 চর্যাযূগে দেখা পাই, তাহা'রই ক্রমপাঁরণাঁতর ইতিহাস বাঙ্গালা সাহত্যের ইঁতি- বৃত্ত। শতাব্দীতে শতাব্দীতে 'বাভন্ন সাহিত্যকারগণ ইহারই পযষ্টপাধন কাঁরয়া আদসিতেছেন। (খনক্টীয় অন্টাদশ শতাব্দীর কাঁ রায়গুপাকর ভারতচল্দু যখন সাহিত্যক্ষেত্রে অবতীর্ণ হইয়াছিলেন, তখন আদিয়াছিন একটি অ্পর্্ব সাহত্যিক দিকপারবর্তন। মুসলমান রাজত্ব তখন মসনদ ত্যাগ কাঁরয়া মসজদের 'দিকে পদপ্রক্ষেপের জন্য প্রস্তুত__এক নবতন রাজমোতক পাঁর্িবর্তনের আশঙ্কায় সমগ্র বাঙ্গালা দেশ উচ্চাকত। এই স্তিমিত প্রদীপের আলোকরশ্মিকে নূতন কারয়া তৈলানিষেকে প্রোঙ্জবল কারয়াছিলেন ভারতচন্দ্ু। তানি মঙ্গল- কাব্যের চিরাচারত প্রথার মধ্যে নবীনতার বাঁজ বপন করিয়াছিলেন) তাঁহার কাব্যে মানুষ স্বজনের, স্বঘরের, সুখ-দুঃখের ইতিহাস শুনিতে পাইয়াছল। তাই ভারতচন্দর কাব্য শুধু মঙ্গলকাব্য নহে, কাব্যে হীতহাস। উত্তর কালের বহু কাঁবর প্রেরণা ভারতচন্দ্রের কাব্য হইতে উৎসারিত হইয়াছল। রামানাঁধ গুপ্ত, দাশরাঁথ রায়, ঈশ্বর গৃপ্ত, বঙ্কিম, শ্রীমধ্নসূদন, রবীন্দ্রনাথ প্রমুখ সাহত্য-শিল্পীবন্দের মনোরাজ্যে ভারতচন্দরের প্রভাব অতুলনীয়। যে-চিন্তার মূস্তধারা ভারতচন্্ে প্রবাহিত হইয়াছিল, তাহারই খাতে আসিয়াছিল পরবস্তাঁ কৃঁষ্টিতে খণচ্চীয় অন্টাদশ শতক স্মরণীয়। |এই শতাব্দীতে ভারতে হিন্দু [ভারতীয়] মুসলমান [আরবা, ফারসী তুকাঁ] কৃঁষ্টর